kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

বাগমারায় উঠছে ভবন

পাউবোর জমি দখল

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার শিবজাইট গ্রামের দুই প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) অধিগ্রহণ করা জমি অবৈধভাবে দখলে নিয়ে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। কাজ বন্ধের জন্য পাউবো থেকে নির্দেশ দিলেও তার তোয়াক্কা না করে নির্মাণকাজ চালিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিবজাইট বাজারের পূর্ব দিকে বারনই নদীর পার ঘেঁষে অবস্থিত মোহনপুর মৌজার জেএল নম্বর ২৫২, ৮২ নম্বর আরএস খতিয়ান এবং ৩৮৭ নম্বর হাল দাগের জমির ওপর বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ চলছে। স্থানীয় রনি খন্দকার ও আব্দুল মোমিন মাস্টার এ কাজে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানায়, জায়গা দখলের বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর রনি ও মোমিন কৌশলে কাজ উদ্ধার করতে স্কুলের জন্য ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে বলে প্রচার শুরু করেন। তাঁরা স্টুডেন্টস নার্সারি একাডেমি নামের একটি সাইনবোর্ড ভবনের সামনে টানিয়ে নির্মাণকাজ অব্যাহত রাখেন। নির্মাণাধীন ওই ভবনের আশপাশে তিনটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থাকার পরও দূরত্ব না মেনে স্কুল নির্মাণ করা হচ্ছে। এতে বিদ্যালয়সংশ্লিষ্টসহ স্থানীয়রা অসন্তোষ প্রকাশ করে। তারা পাউবোর জমি উদ্ধারের দাবি জানিয়েছে। এই জায়গা দখলের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া না হলে পরবর্তী সময়ে আশপাশের সরকারি জমিগুলোও একসময় বেদখল হয়ে যাবে বলে স্থানীয়রা আশঙ্কা করছে।

তবে জমি দখলের বিষয়টি অস্বীকার করেন আব্দুল মোমিন।

রনি খন্দকার বলেন, ‘এলাকার শিশু-কিশোরদের সুবিধার জন্য আমরা কেজি স্কুল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছি। সেই স্কুলের ক্লাসরুম নির্মাণের কাজ করা হচ্ছে। কোনো জায়গা দখলের বিষয় নেই এখানে।’

বাগমারা উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত পাউবোর সহকারী প্রকৌশলী আমজাদ হোসেন বলেন, ‘আমি ওয়ার্ক অ্যাসিস্ট্যান্টের মাধ্যমে ভবন নির্মাণকাজ বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছি। এর পরও শুনছি কাজ বন্ধ হয়নি। প্রয়োজনে আইনি সহায়তা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা