kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

নওগাঁয় বাড়ছে সংক্রমণ

৩০ লাখ মানুষ, নেই ল্যাব আইসিইউ

ফরিদুল করিম, নওগাঁ   

১ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারত সীমান্তঘেঁষা নওগাঁ জেলায় প্রায় ৩০ লাখ মানুষের বসবাস। রাজশাহী বিভাগের আট জেলার মধ্যে এখানে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। মানুষ মারাও যাচ্ছে। অত্যন্ত দুঃখের বিষয় যে এই জেলায় নেই পিসিআর ল্যাব। এ ছাড়া নেই কোনো আইসিইউ শয্যা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নওগাঁয় রয়েছে ২৫০ শয্যার আধুনিক হাসপাতাল আর ২০১৮ সালে স্থাপন করা হয়েছে নওগাঁ মেডিক্যাল কলেজ। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর থেকে আধুনিক সদর হাসপাতালে সম্ভাব্য রোগীদের করোনার নমুনা সংগ্রহ করে প্রথম দিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলেও বর্তমানে সপ্তাহে দুই দিন নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হচ্ছে ঢাকায়। এর ফলে রিপোর্ট আসতে সময় লাগছে ১০-১৫ দিন। লক্ষণবিহীন করোনায় আক্রান্ত রোগী নমুনা দিয়ে হরহামেশা ঘুরে বেড়াচ্ছেন আর নতুন করে সংক্রমিত করছে অন্য ব্যক্তিদের। এদিকে নওগাঁয় প্রতিদিন প্রায় ৭০-৮০ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। কোনো কোনো দিন সংখ্যা এর চেয়েও অনেক বেশি। এ ছাড়া বেসরকারিভাবে নওগাঁর আর কোথাও করোনা পরীক্ষার কেন্দ্র না থাকায় সদর হাসপাতালে এসে দীর্ঘ লাইন ধরে অপেক্ষা করে নমুনা দিতে হচ্ছে। আর ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে দিনের পর দিন। জেলার ১১টি উপজেলার পাশাপাশি বগুড়ার আদমদীঘি ও জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার বেশির ভাগ মানুষ চলাচল করে নওগাঁয়। অন্যদিকে বগুড়া ও রাজশাহীতে ল্যাব থাকলেও সেগুলোতে চাপ থাকার কারণে নওগাঁর নমুনাগুলো স্বাস্থ্য বিভাগ ঢাকায় পাঠাতে বাধ্য হচ্ছে। অথচ নওগাঁয় যদি করোনা পরীক্ষাকেন্দ্র থাকত তাহলে মানুষ সহজেই করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ফলাফল জানতে পারত। আর সঙ্গে সঙ্গে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিরা প্রতিরোধমূলক জরুরি পদক্ষেপ নিত। এতে করে করোনা সংক্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে কমত। এখন পর্যন্ত এ জেলায়, ৪৫১ জন শনাক্ত এবং ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

নওগাঁ সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন একুশে পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট ডি এম আব্দুল বারী বলেন, মানুষকে বাঁচাতে হলে দ্রুত পিসিআর ল্যাব ও আইসিইউ স্থাপনের কোনো বিকল্প নেই।

নওগাঁর ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মনজুর-এ-মুর্শেদ জানান, নওগাঁয় পিসিআর ল্যাব ও আইসিইউ স্থাপনের জোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

নওগাঁ জেলা প্রশাসক মো. হারুন-অর-রশিদ জানান, খাদ্যমন্ত্রীর ডিও লেটারসহ জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নওগাঁয় দ্রুত পিসিআর ল্যাব ও আইসিইউ স্থাপনের জন্য লিখিতভাবে আবেদন করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা