kalerkantho

শুক্রবার। ২৬ আষাঢ় ১৪২৭। ১০ জুলাই ২০২০। ১৮ জিলকদ ১৪৪১

ভেড়ামারা উদয়ন একাডেমি

ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট নিয়োগে অনিয়ম

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি   

৩০ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাবনার ভাঙ্গুড়ায় একটি এমপিওভুক্ত বিদ্যালয়ের ভোকেশনাল শাখায় কম্পিউটার ও তথ্য-প্রযুক্তি এবং ইলেকট্রনিকস বিষয়ে ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে নিয়োগ পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভেড়ামারা উদয়ন একাডেমি নামের ওই প্রতিষ্ঠানটিতে অবৈধ অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতির ছেলেকে নিয়োগ দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলে অভিযোগ করেছেন চাকরিপ্রার্থীরা। এ ঘটনায় নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীরা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ ছাড়া ইলেকট্রনিকস বিষয়ে লিখিত পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকারী নয়ন আহমেদকে বাদ দিয়ে আরেকজনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এর আগেও বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে জাল সনদে শিক্ষক নিয়োগ, এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায় ও প্রবেশপত্র দিতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল।

চাকরিপ্রার্থীদের লিখিত অভিযোগ ও অনুসন্ধানে জানা যায়, গত শনিবার আবেদনকারীদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। ওই দিনই রাতে ঘোষিত পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফলে কম্পিউটার ও তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ে চুয়াডাঙ্গার হাবিবুর রহমান নামের এক প্রার্থী প্রথম স্থান ও মাহফুজ আলী দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন। কিন্তু মোটা অঙ্কের অর্থের লেনদেনের মাধ্যমে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা সভাপতির ছেলে মাহফুজ আলীকে নিয়োগ দেয় ব্যবস্থাপনা কমিটি।

এদিকে ইলেকট্রনিকস বিষয়ে লিখিত পরীক্ষায় ৪১ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান অধিকার করা নয়ন আহমেদ অভিযোগ করেন, ব্যবহারিক পরীক্ষা না নিয়েই ৩৭ নম্বর পাওয়া রাকিবুল নামের আরেকজনকে ব্যবহারিক পরীক্ষায় বেশি নম্বর দিয়ে প্রথম বানিয়ে চূড়ান্ত নিয়োগপত্র দেওয়া হয়েছে।

বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য বাবলু হোসেন বলেন, কম্পিউটার বিষয়ে নিয়োগ পরীক্ষায় স্বচ্ছতা ছিল না। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পারভাঙ্গুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হেদায়েতুল হক বলেন, নিয়োগ পরীক্ষায় কোনো প্রকার অনিয়ম হয়নি। মেধাতালিকার ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশরাফুজ্জামান বলেন, ‘লিখিত অভিযোগের অনুলিপির কপি এখনো হাতে পাইনি। পেলে এ বিষয়ে অনুসন্ধান করা হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা