kalerkantho

মঙ্গলবার  । ২০ শ্রাবণ ১৪২৭। ৪ আগস্ট  ২০২০। ১৩ জিলহজ ১৪৪১

চাঁদপুরে আট নমুনা সংগ্রহকারী আক্রান্ত

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

৭ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদপুরে করোনা উপসর্গের নমুনা সংগ্রহকারী আব্দুল মালেক মিয়াজী এখন নিজেই করোনা পজিটিভ রোগী। জেলায় করোনা বিস্তার শুরু হলে নিজেই পাঁচ শতাধিক ব্যক্তির শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছেন তিনি। সিনিয়র টেকনোলজিস্ট পদে কাজ করছেন চাঁদপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে। 

দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে জেলা বক্ষব্যাধি হাসপাতালের শাখাওয়াত হোসেন এবং সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহিদুল ইসলামসহ আটজন করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা গেছে, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালসহ জেলার আট উপজেলায় ৩০ জন হেলথ টেকনোলজিস্ট কর্মরত আছেন। জেলায় করোনার বিস্তার শুরু হলে রোগীর বাড়ি বাড়ি গিয়ে এবং হাসপাতালে নমুনা সংগ্রহের দায়িত্ব পালন করতে থাকেন তাঁরা। তাঁদের মধ্যে জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র টেকনোলজিস্ট আব্দুল মালেক মিয়াজী একাই পাঁচ শতাধিক মানুষের নমুনা সংগ্রহ করেছেন। গত এক সপ্তাহে আব্দুল মালেক মিয়াজী, শাখাওয়াত হোসেন ও সহিদুল ইসলাম এবং তাঁদের সাহায্যকারী ও একজন অ্যাম্বুল্যান্স চালকসহ আটজন করোনা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

এ ব্যাপারে জেলা সিভিল সার্জন ডা. সাখাওয়াত উল্লাহ বলেন, ‘করোনার নমুনা সংগ্রহকারী, তাঁদের সাহায্যকারী এবং এসব নমুনা ঢাকায় পাঠাতে গিয়ে দায়িত্ব পালনকারী অ্যাম্বুল্যান্স চালকও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তরা সবাই তাঁদের বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।’

বাংলাদেশ মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (বিএমটিএ) চাঁদপুর শাখার সহসভাপতি মাসুদ হাসান বলেন, ‘জীবনের ঝুঁকি আছে জেনেও সাহসিকতার সঙ্গে হেলথ টেকনোলজিস্টরা করোনার নমুনা সংগ্রহ করছেন। সময়ের এই সাহসী করোনাযোদ্ধাদের প্রতি সুদৃষ্টি রাখতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।’

মন্তব্য