kalerkantho

রবিবার । ২১ আষাঢ় ১৪২৭। ৫ জুলাই ২০২০। ১৩ জিলকদ  ১৪৪১

রাণীনগরে সরকারি চাল নিয়ে মারামারি

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

৭ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নওগাঁর রাণীনগরে হতদরিদ্রদের জন্য সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির চাল নিয়ে ডিলারের সঙ্গে মারধরের ঘটনায় পাঁচজন আহত হয়েছেন। শনিবার সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন দক্ষিণ রাজাপুর গ্রামের মৃত রিয়াজুল শেখের ছেলে ডিলার এস এম শরিফ উদ্দীন, তাঁর ছোট ভাই মোহাতাব হোসেন ও ছেলে আবু সাইদ মৃদুল। একই গ্রামের সুবিধাভোগী আশরাফুল ইসলাম মিঠু ও তাঁর ছোট ভাই আব্দুর রউফ রতন।

জানা গেছে, সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি চালের ডিলার এস এম শরিফ উদ্দীন উপজেলা সদরের দক্ষিণ রাজাপুর গ্রামের কার্ডধারী আশরাফুল ইসলাম মিঠু ও তাঁর ছোট ভাই আব্দুর রউফ রতনকে দুই কার্ডের বিপরীতে ৬০ কেজি চালের স্থলে পাঁচ মণ চাল দেন। এরপর অতিরিক্ত প্রতি কেজি চালের দাম ৩০ টাকা হিসাবে নেবেন—এমনটি জানালে মিঠু ও রতন ১০ টাকা কেজি দিতে চান। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এরই জেরে গতকাল সকালে দক্ষিণ রাজাপুর মোড়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনায় পাঁচজন আহত হন। আহতদের রাণীনগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত আশরাফুল ইসলাম মিঠু বলেন, ‘ডিলারের লোকজন আমাদের বাড়ি থেকে জোর করে চাল নিতে চাইলে আমরা বাধা দিই। এ সময় তাঁরা আমাদের বেধড়ক মারধর করে।’

ডিলার এস এম শরিফ উদ্দীন বলেন, ‘তাদের সঙ্গে আমাদের পারিবারিক ঝামেলার কারণে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। চাল নিয়ে তাদের সঙ্গে কোনো দ্বন্দ্ব হয়নি।’

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল মামুন বলেন, ‘ঘটনা শুনেছি। তদন্ত করে যদি কোনো চালসংক্রান্ত অনিয়ম পাই, আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

রাণীনগর থানার পরিদর্শক মো. জহুরুল হক বলেন, ‘অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য