kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত চালকল ব্যবসায়ী সহায়তা চান

জয়পুরহাট প্রতিনিধি   

৬ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১৫ বছরের প্রবাস জীবন শেষে দেশে ফিরে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখেছিলেন মোস্তাফিজার রহমানের। কিন্তু বিধি হলো বাম। গত মঙ্গলবার রাতে জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় তাঁর স্বয়ংক্রিয় চালকল। এর সঙ্গে তাঁর স্বনির্ভর হওয়ার স্বপ্নও যেন ভেঙে চুরমার। চালকলের পুরো অবকাঠামো চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে শুধু মেশিনগুলো দাঁড়িয়ে আছে। ঝড়ে চালকলের ধ্বংস অবকাঠামোর নিচে চাপা পড়েছে প্রায় ২০০ মেট্রিক টন চাল।

জানা গেছে, গত ২৬ মে রাতের ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষেতলাল ও কালাই উপজেলার ২০ গ্রামের সহস্রাধিক বাড়িঘর ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষেতলাল পৌর সদরের খলিশাগাড়ী মহল্লায় ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে দুই শিশুসহ মা নিহত হন। কালাই উপজেলার হারুঞ্জা গ্রামে একইভাবে দেয়াল চাপা পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু হয়।

ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত চালকল মালিক মোস্তাফিজার রহমান দুলু বলেন, ‘আমি কিভাবে চালকলটি রক্ষা করব, ভেবে পাচ্ছি না।’

ক্ষেতলাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরাফাত রহমান বলেন, ‘চালকল মালিকের আবেদন পেলে সুপারিশ করে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন মহলে পাঠানো হবে।’

জাতীয় সংসদের হুইপ ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সরকারিভাবে পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়ার জন্য তিনি অবশ্যই চেষ্টা করবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা