kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ আষাঢ় ১৪২৭। ৯ জুলাই ২০২০। ১৭ জিলকদ ১৪৪১

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড

পাসের হার বেশি দিনাজপুরে জিপিএ ৫ রংপুর জেলায়

দিনাজপুর প্রতিনিধি   

১ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে এসএসসি পরীক্ষায় এবার পাসের হারে মেয়েরা এবং জিপিএ ৫-এ ছেলেরা এগিয়ে। এই বোর্ডে এবার পাসের হার ৮২.৭৩ শতাংশ। বোর্ডে এক লাখ ৫৮ হাজার ৬৮৫ জন শিক্ষার্থী পাস করেছে। তবে বোর্ডে জেলাভিত্তিক ফলের হিসাবে পাসের হারে দিনাজপুর ও জিপিএ ৫-এ রংপুর জেলা সেরা। দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দিনাজপুর জেলায় পাসের হার ৮৪.৮৭ শতাংশ। এই জেলায় জিপিএ ৫ পেয়েছে দুই হাজার ৮৪৩ জন। রংপুরে পাসের হার ৮৩.৪৪ শতাংশ ও জিপিএ ৫ পেয়েছে দুই হাজার ৮৫১ জন। তা ছাড়া গাইবান্ধায় পাসের হার ৮৪.৭৪. শতাংশ ও জিপিএ ৫ এক হাজার ৬৪৮ জন, নীলফামারীতে পাসের হার ৮৩.২৫ শতাংশ ও জিপিএ ৫ এক হাজার ৪৭২ জন, কুড়িগ্রামে পাসের হার ৭৯.৬৩ শতাংশ ও জিপিএ ৫ এক হাজার ৯২ জন, লালমনিরহাটে পাসের হার ৭৭.৮৮ শতাংশ ও জিপিএ ৫ ৪৫৯ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে পাসের হার ৮২.৬৪ শতাংশ ও জিপিএ ৫ এক হাজার ১৭৩ জন, পঞ্চগড়ে পাসের হার ৮১.০৫ শতাংশ ও জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫৫৭ জন।

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীদের পাসের হার বেশি। ছাত্রদের পাসের হার ৮১ দশমিক ২২ আর ছাত্রীদের ৮৪ দশমিক ৩২ ভাগ।

বিজ্ঞান বিভাগে উত্তীর্ণ হয়েছে ৭৭ হাজার ৫১২ জন। এর মধ্যে ৪৪ হাজার ১২২ জন ছাত্র। ছাত্র পাসের হার ৯৪.১০ শতাংশ। ছাত্রী ৩৩ হাজার ৩৯০ জন। ছাত্রী পাসের হার ৯৫.৬৬ শতাংশ। ছাত্রদের চেয়ে ১.৫৬ শতাংশ বেশি ছাত্রী পাস করেছে। বিজ্ঞান বিভাগে গড় পাসের হার ৯৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

মানবিক বিভাগে উত্তীর্ণ হয়েছে ৭৭ হাজার ৫৪৬ জন। এর মধ্যে ৩৩ হাজার ৫৯১ জন ছাত্র, পাসের হার ৬৪.৯৯ শতাংশ। ছাত্রী ৪৩ হাজার ৯৫৫ জন। ছাত্রী পাসের হার ৭৭.৩৩ শতাংশ। ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রী পাসের হার ১২.৩৪ শতাংশ বেশি। মানবিক বিভাগে গড় পাসের হার ৭৩ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে তিন হাজার ৬২৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। এর মধ্যে দুই হাজার ৫৬৪ জন ছাত্র। ছাত্র পাসের হার ৭৮.৭৫। ছাত্রী এক হাজার ৬৩ জন। ছাত্রী পাসের হার ৮৫.৫২। ছাত্রদের তুলনায় ৬.৭৭ শতাংশ ছাত্রী পাস করেছে বেশি। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে গড় পাসের হার ৮০ দশমিক ৬২।

অন্যদিকে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন। এর মধ্যে ছয় হাজার ৩২৬ জন ছাত্র ও পাঁচ হাজার ৭৬০ জন ছাত্রী। ছাত্রীদের চেয়ে ৫৬৬ জন ছাত্র জিপিএ ৫ বেশি পেয়েছে।

এদিকে দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডে এবার পাসের হার কমলেও জিপিএ ৫ বেড়েছে। কমেছে শতভাগ পাস করা স্কুলের সংখ্যা। এবার গড় পাসের হার ৮২.৭৩। যা গতবার ছিল ৮৪.১০ শতাংশ।

শতভাগ পাস করা বিদ্যালয়ের সংখ্যা ১২২, যা গতবার ছিল ১৩৮টি। একটি বিদ্যালয়ের কেউই পাস করেনি।

দিনাজপুর বোর্ডে এসএসসিতে এবার গণিত বিষয়ে ১৯ হাজার ২৯৬ জন শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে। তবে এই সংখ্যা গতবারের চেয়ে কম। গতবার গণিতে অকৃতকার্য হয়েছিল ২৪ হাজার ৯১০ জন। এবার মোট অকৃতকার্য ৩১ হাজার ৯৭৮ জন। অন্যান্য সব বিষয় মিলে অকৃতকার্য ১১ হাজার ৬৮২ জন।

ফল প্রকাশের পর দিনাজপুর বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. তোফাজ্জুর রহমান বলেন, বিগত বছরের তুলনায় এবার পাসের হার কম হলেও ফলাফলের মানদণ্ড ভালো। তিনি আরো বলেন, বোর্ডে অকৃতকার্যদের মধ্যে বেশির ভাগই অঙ্কে খারাপ করেছে। সব স্কুলে মাস্টার ট্রেইনার শিক্ষক না থাকায় ছাত্রদের জন্য প্রশ্ন কঠিন হয়েছে। তাই আগামী দিনে অঙ্কের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের কোনো বিকল্প নেই।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বলেন, স্কুলগুলোতে শিক্ষক নিয়োগে অনিয়মের কারণে দক্ষ প্রার্থীরা নিয়োগ পাননি। বর্তমানে এনটিআরসিএর মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থীদের নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। তবু এই সমস্যা কাটিয়ে উঠতে সময় লাগবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা