kalerkantho

রবিবার । ২৮ আষাঢ় ১৪২৭। ১২ জুলাই ২০২০। ২০ জিলকদ ১৪৪১

বাগমারায়

বান্ধবীসহ যুবককে তুলে নিয়ে দুই দিন নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

৩০ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজশাহীর বাগমারায় এক বখাটের বিরুদ্ধে পাওনা টাকা আদায়ের জন্য আতাউর রহমান (৩২) নামের এক যুবক ও তাঁর মেয়ে বন্ধুকে দুই দিন ধরে আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় পুলিশ আতাউরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে।

যাঁর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে তিনি হাসান তারিক ওরফে রকি (২৮)। রকি উপজেলার সাঁকোয়া গ্রামের বাসিন্দা ও স্থানীয় এমপি এনামুল হকের চাচাতো ভাই বাবু হোসেনের ছেলে। ঘটনার পর থেকেই রকি পলাতক।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, উপজেলা কৃষি অফিসের কর্মচারী (এমএলএসএস) আতাউর রহমানের কাছে এক ব্যক্তি টাকা পান। তিনি টাকা উদ্ধারের জন্য এমপির ভাতিজা হাসান তারিক ওরফে রকির দ্বারস্থ হন। এরই মধ্যে গত মঙ্গলবার রাতে রকি তাঁর কয়েকজন সহযোগীকে সঙ্গে নিয়ে মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট এলাকার ভাড়া বাসা থেকে আতাউর রহমান ও তাঁর এক মেয়ে বন্ধুকে (২৮) একটি মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে আসেন। এরপর শিকদারী এলাকার সিঙ্গাপুরপ্রবাসী আনোয়ার হোসেনের নবনির্মিত একটি ভবনে তাঁদের আটকে রাখা হয়।

এর মধ্যে আতাউর রহমানের চোখ ও হাত বেঁধে একটি কক্ষে রেখে নির্যাতন চালানো হয়। এভাবে দুই দিন ধরে চালানো হয় আতাউর রহমানের ওপর নির্যাতন। তবে বিষয়টি স্থানীয় এক ব্যক্তি টের পেরে থানায় খবর দেন। এরপর গত বৃহস্পতিবার বিকেলে চোখ ও হাত বাঁধা অবস্থায় আতাউরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তা ছাড়া খবর দেওয়া হলে ওই নারীর স্বজনরা থানায় এসে তাঁকে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আতাউর বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।

এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছে, রকি নিজেকে এমপির ভাতিজা পরিচয় দিয়ে নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত। তিনি নিজ বাড়িতে না থেকে প্রবাসীর ওই ভবনে অবস্থান করে বিভিন্ন অপরাধ করে আসছিলেন।

বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, অন্যের টাকা আদায় করে দিতে রকি এ ধরনের অপকর্মে জড়িয়ে পড়েন। এভাবে বেশ কিছু টাকাও হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি। তা ছাড়া আতাউরের মেয়ে বন্ধুকে উদ্ধার করে তাঁর স্বজনদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ রকিসহ তাঁর সহযোগীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা