kalerkantho

রবিবার । ২৮ আষাঢ় ১৪২৭। ১২ জুলাই ২০২০। ২০ জিলকদ ১৪৪১

আক্কেলপুরে গাছে বেঁধে গৃহবধূর শরীরে ছেঁকা

স্বামী ও ভাসুর গ্রেপ্তার

জয়পুরহাট প্রতিনিধি   

২৯ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রান্না খারাপের অভিযোগ তুলে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীকে লিচুগাছে বেঁধে শরীরের বিভিন্ন স্থানে গরম ছেঁকা দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে আক্কেলপুর থানায় মামলা করেন। পুলিশ তাঁর স্বামী ও ভাসুরকে গ্রেপ্তার করেছে।

গত বুধবার রাতে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর পৌর শহরের শ্রীকৃষ্টপুর স্কুলপাড়া মহল্লায় এই ঘটনা ঘটে। খাদিজা খাতুন (২০) নামের ওই গৃহবধূর চিৎকারে প্রতিবেশীরা দরজা ভেঙে তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ খাদিজা খাতুন বলেন, ‘বিয়ের পর থেকেই শ্বশুর-শাশুড়ি আমাকে সহ্য করতে পারছিলেন না। তাঁদের কারণে বিভিন্ন সময় স্বামী আমাকে মারধর করত। গত বুধবার রাতে বাড়ি ফিরেই রান্না খারাপ হয়েছে বলে আমাকে মারধর শুরু করে। পরে আমাকে বাড়ির আঙিনায় লিচুগাছে পিছমোড়া দিয়ে বেঁধে ফেলে। তখন আমার শ্বশুর-শাশুড়ি উঠানে দাঁড়িয়ে ছিলেন। পরে আমার স্বামী নিড়ানি গরম করে আমার দুই গালে ও হাতে-পায়ে ছেঁকা দেয়। যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে চিৎকার দিয়ে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি।’

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নাজমুল হক বলেন, গৃহবধূর গালে ও হাতে-পায়ে ছেঁকা দেওয়ার চিহ্ন রয়েছে।

গৃহবধূর স্বামী শাকিল হোসেন বলেন, ‘দুই দিন আগে আমার মোবাইলে কল দিয়ে এক ছেলে আমার বউয়ের সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিল। আজকে আবার ওই নম্বর থেকে মিস কল আসে। এ কারণে বউকে লিচুগাছের সঙ্গে বেঁধে নিড়ানি গরম করে ছেঁকা দিয়েছি।’

আক্কেলপুর থানার ওসি আবু ওবায়েদ বলেন, এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার নির্যাতিত গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা করলে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা