kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২ জুন ২০২০। ৯ শাওয়াল ১৪৪১

মেহেরপুর

খাদ্য সংকটে বাস শ্রমিকরা

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

৬ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় গত ২৬ মার্চ থেকে দেশের সব গণপরিবহন বন্ধ করা হয়েছে। ফলে বেশির ভাগ শ্রমিকরা তাঁদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অভুক্ত দিন কাটাচ্ছেন। পরিবহন বন্ধের ১২ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো কোনো শ্রমিক সরকারি বা বেসরকারি কোনো সাহায্য-সহযোগিতা পাননি।

জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন সূত্রে জানা গেছে, জেলায় সাড়ে তিন হাজার বাস শ্রমিক রয়েছেন। এঁদের মধ্যে আড়াই হাজার শ্রমিক দিন এনে দিনে খাওয়ার মতো। তাঁদের নিয়ে বিপাকে পড়েছেন শ্রমিক সংগঠনের নেতারা। বাস শ্রমিক মমিন জানান, তাঁর পরিবারের সদস্য পাঁচজন। সব কিছু বন্ধ থাকায় খুব অর্থ কষ্টে ভুগছেন। ফলে পরিবারের সদস্যদের খাবার জোগান দেওয়া বেশ কঠিন হয়ে পড়েছে। একই আর্থিক পরিস্থিতির কথা জানান শ্রমিক  ফিরোজ, পিনু, এরশাদ, মন্টুসহ অনেকে।

এ ব্যাপারে জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় মানুষ যেন অভুক্ত না থাকে এ কারণে সরকার জেলায় প্রায় ৬০০ মেট্রিক টন চাল এবং প্রায় ১২ লাখ টাকা নগদ অনুদান দিয়েছে বলে শুনেছি। জেলায় অটোচালক ও মালিকদের সরকারি ত্রাণ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে আমাদের শ্রমিকরাও যাতে এ ত্রাণ পেতে পারে তার দাবি জানাচ্ছি।’

এ বিষয়ে জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রসুল বলেন, ‘পরিস্থিতি মোকাবেলায় আজ রাতে শ্রমিকদের সঙ্গে জরুরি সভা ডাকা হয়েছে। সেখানে মালিক ও শ্রমিক নেতারা মিলে একটি করণীয় নির্ধারণ করা হবে।’ জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি বলেন, ‘তাঁরা ভিন্ন ভিন্ন খাতে সড়কে টাকা তুলে থাকেন। তাঁদের মালিক পক্ষও অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী। সেখান থেকেও তাঁরা সাহায্য পেতে পারেন। তার পরও মালিকপক্ষ থেকে জানালে বিষয়টি আমরা বিবেচনায় নেব।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা