kalerkantho

বুধবার । ২৫ চৈত্র ১৪২৬। ৮ এপ্রিল ২০২০। ১৩ শাবান ১৪৪১

ঠাকুরগাঁওয়ে অজ্ঞাত রোগ

একই পরিবারের দুজনের মৃত্যু

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একই পরিবারের দুজনের মৃত্যু

ঠাকুরগাঁওয়ে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়ে গত দুই দিনে একই পরিবারের দুজনের মৃত্যু হয়েছে। জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সনগাঁও গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। আর অস্বাভাবিক এমন মৃত্যুতে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে অসুস্থ হয়ে আরো ভর্তি রয়েছেন তিনজন। তবে চিকিৎসকরা বলছেন, প্রথমজনের মৃত্যু ছিল স্বাভাবিক। পরে অন্যরা শোক আর আতঙ্কে অসুস্থ হয়েছেন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সনগাঁও গ্রামের হাফিজুল ইসলাম জানান, তাঁর স্ত্রী মিনা বেগম (৩৫) গত শুক্রবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে মারা যান। মৃত্যুর আগে তাঁর শরীরে তিনবার ঝাঁকুনি হয়। পরদিন শনিবার রাতে বড় ভাই হাজিরুলের স্ত্রী পশিনা বেগম (৪০) হঠাৎ অসুস্থ বোধ করে দুবার বমি করেন। এ সময় পরিবারের লোকজন তাঁকে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে চিকিৎসা নিয়ে রাতেই বাড়ি ফেরেন। পরদিন রবিবার সকালে তিনিও মারা যান। এই ঘটনার পর তাঁর মেয়ে তানজিনা আক্তার (১৪), নিহত পশিনা বেগমের শাশুড়ি হাজেরা খাতুন (৫৪) ও আলেয়া আক্তার (৩৫) অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁদের রবিবার ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হাজেরা খাতুন জানান, হাফিজুল ইসলামের স্ত্রী মিনা বেগমের মৃতদেহ গোসল করান পশিনা বেগম। এর পর থেকে পশিনা একটু অসুস্থ বোধ করছিলেন। রাতে বমি করার পর তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরদিন সকালে তাঁরও মৃত্যু হয়। একই পরিবারের পর পর দুজনের মৃত্যুতে অনেকেই শোকাহত হয়ে পড়েন।

ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক ডা. তোজাম্মেল হক জানান, তিনি খুব নিবিড়ভাবে তানজিনা আক্তার, হাজেরা খাতুন ও আলেয়া আক্তারের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেছেন। তাঁদের শরীরে নিপাহ বা অন্য কোনো ভাইরাস নেই। তাই তাঁদের তিনজনকেই অন্য রোগীদের সঙ্গে রাখা হয়েছে। তাঁরা শোক ও আতঙ্কে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বর্তমানে তাঁরা সবাই সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছেন।

সিভিল সার্জন ডা. মো. মাহফুজার রহমান সরকার জানান, দুজনের মৃত্যুর কারণ উদ্ঘাটনের চেষ্টা চালাচ্ছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের একটি প্রতিনিধিদল।

জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম জানান,  জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ সজাগ রয়েছে।  উপজেলা প্রশাসনকে সচেতনতার জন্য প্রচারণা চালাতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা