kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

মোটরসাইকেল নিয়ে বিমানবন্দরে ঢোকার চেষ্টা

বাধা দেওয়ায় আর্মড পুলিশকে মারধর তিন যুবক গ্রেপ্তার

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দরের ভেতরে মোটরসাইকেল নিয়ে ঢোকার চেষ্টা করেছে তিন যুবক। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের এক সদস্য বাধা দেওয়ায় তাঁকে মারধর ও জখম করেছে তারা। গতকাল রবিবার সৈয়দপুর বিমানবন্দরে প্রবেশের প্রধান ফটকে এ ঘটনা ঘটে। আহত পুলিশ সদস্য সেলিমকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা হলো শহরের হাতিখানার মো. শরীফের ছেলে মো. ওমর আলী ও তাঁর ভাই হায়দার আলী এবং একই এলাকার মো. আলী হোসাইনের ছেলে মো. ইজাজ আহমেদ ওরফে রফিক।

ওই ঘটনায় হওয়া মামলার অভিযোগে বলা হয়, তিন যুবক একটি মোটরসাইকেল (নীলফামারী-ল-১১-২৯৪৫) নিয়ে বিমানবন্দরে প্রবেশের প্রধান ফটক দিয়ে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে। দায়িত্বরত পুলিশ কনস্টেবল সেলিম তাঁদের মোটরসাইকেলটি থামানোর জন্য সংকেত দেন। কিন্তু তিন যুবক সংকেত অমান্য করে বিমানবন্দরে প্রবেশের চেষ্টা করে।

পরে কনস্টেবল সেলিম দৌড়ে কিছু দূর গিয়ে মোটরসাইকেলটি থামান। এর পরই তিন যুবক মোটরসাইকেল থেকে নেমে কনস্টেবল সেলিমকে গালাগাল করতে থাকে। প্রতিবাদ করলে ওমর আলী এসে কনস্টেবল সেলিমের সরকারি পোশাকের কলার ধরে টানাতে থাকে।  এরপর অন্য যুবকও সেলিমের ওপর চড়াও হয়ে কিল-ঘুষি মারতে থাকে। এতে কনস্টেবল সেলিমের নাকের হাড় ভেঙে যায়। ওই সময় পুলিশ সদস্য শহীদুল, মনসুর ও আনসার সদস্য এলোপতি বর্মণ এগিয়ে গিয়ে সেলিমকে তিন যুবকের হাত থেকে রক্ষা করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা