kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

বগুড়ায় বিএনপিকর্মী খুন

দুই স্থানে চালকসহ দুজনের লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া, শাজাহানপুর (বগুড়া) ও শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বগুড়ায় বিএনপিকর্মী আপেল মাহমুদকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এ সময় তাঁর বড় ভাই আল মামুন গুরুতর আহত হন। অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের মহাস্থানের পাশে সদর উপজেলার দিঘলকান্দি মোড়ে ঘটনাটি ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। মামুনকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আপেল ও মামুন পলাশবাড়ী পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে। আপেল গোকুল ইউনিয়ন বিএনপির সক্রিয় কর্মী ছিলেন। আর তাঁর বড় ভাই মামুন একই ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সদস্য।

পরিবার জানায়, আপেল ও মামুন ছাগল কেনাবেচা করতেন। গতকাল সকাল ৮টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে মহাস্থানে আসেন তাঁরা। এ সময় তাঁদের মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে কোপানো হয়। এতে ঘটনাস্থলেই আপেল নিহত হন।  

স্থানীয় সূত্র জানায়, আধিপত্য বিস্তারের জেরে ২০১৮ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি গোকুল হলবন্দরে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা ও একাধিক মামলার আসামি মিজানের সহযোগী সনিকে হত্যা করা হয়। এ হত্যা মামলার আসামি হচ্ছেন মামুন। গত বছরের ২১ অক্টোবর আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার পথে শহরে মামুনের ওপর হামলার চেষ্টা চালায় প্রতিপক্ষরা। বগুড়ার ছিলিমপুর ফাঁড়ির (মেডিক্যাল ফাঁড়ি) এসআই আব্দুল আজিজ মণ্ডল বলেন, ‘মামুনের দুই হাতের কবজির প্রায় ৯০ শতাংশ সন্ত্রাসীরা কেটে ফেলেছে।’

বগুড়া সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রেজাউল করিম রেজা জানান, এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী বলেন, ‘অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরেই বিএনপিকর্মী খুন হয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত সময়ে গ্রেপ্তার করা হবে।’

অন্যদিকে একই জেলার শাজাহানপুরে ট্রাকচালক ফরহাদের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে ফরহাদের ঘরের দরজা ভেঙে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি বয়ড়াদীঘি গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে।  স্থানীয়দের অভিযোগ, সত্ভাইদের সঙ্গে জমি নিয়ে ফরহাদের দ্বন্দ্ব আছে। তিনি মাদক সেবন করতেন। গত বুধবার রাতে বাবা ও ভাই মিলে তাঁকে মারধর করেন। পরদিন (গতকাল) সকালে নিজ ঘরে তাঁর ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়।

শাজাহানপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রামজীবন ভৌমিক জানান, ময়নাতদন্ত ছাড়া বলা যাচ্ছে না ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা। সাতক্ষীরার শ্যামনগরে পুকুর থেকে বৃদ্ধ তোফাজ্জেল হোসেনের (ধোনা গাজী) ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল সকালে তারানিপুর গ্রামের শুকুর আলীর পুকুর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। তোফাজ্জেল বৈশখালী গ্রামে থাকতেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা