kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৯ চৈত্র ১৪২৬। ২ এপ্রিল ২০২০। ৭ শাবান ১৪৪১

মাকে হত্যার অভিযোগ স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

তিন স্থানে আরো এক খুন, দুই লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সিরাজগঞ্জে মাকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ছেলের বিরুদ্ধে। ঠাকুরগাঁওয়ে সাবেক স্ত্রীকে ডেকে নিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাঁশবাগানে মিলেছে নিখোঁজ শিশুর লাশ। নীলফামারীতে হাসপাতাল চত্বর থেকে বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

সিরাজগঞ্জ : পৌর এলাকার মুজিব সড়কে বৃদ্ধা রাশিদা বেগমকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ উঠেছে বড় ছেলে নাহিদুল ইসলাম নিয়নের বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে ঘটনাটি ঘটে। অভিযুক্ত নিয়ন সদর উপজেলার শিয়ালকোল ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের উপসহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। তিনি নিয়মিত জুয়া খেলেন বলে অভিযোগ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়নের স্ত্রী পিংকি ও তাঁর ছোট ভাই নিশাদের স্ত্রী তুলিকে আটক করেছে পুলিশ। রাশিদা মুক্তিযোদ্ধা তোজাম্মেল হক জিন্নাহর (মৃত) স্ত্রী ছিলেন।  

পরিবার ও পুলিশ জানায়, জুয়া খেলে অনেক টাকা ঋণ হয়েছে নিয়নের। ঋণ পরিশোধের জন্য বিভিন্ন সময় মায়ের কাছে টাকা দাবি করতেন তিনি। এ নিয়ে গতকাল সকালে মায়ের সঙ্গে তাঁর কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে মাকে বিছানার ওপর ফেলে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়ে যান নিয়ন। এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জ সদর থানার ওসি আবু দাউদ জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যার শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। লাশের পাশ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি জব্দ করা হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও : ৮০ হাজার টাকা ফেরত দিতে রাজি না হওয়ায় সাবেক স্ত্রী নাজমা আক্তারকে ডেকে নিয়ে হত্যার পর লাশ গাছে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে সাদ্দাম হোসেনের বিরুদ্ধে। গত সোমবার রাতে সদর উপজেলার খালপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ (আঞ্চলিক) : সদর উপজেলায় নিজ বাড়ির কাছে বাঁশবাগানে মিলেছে সাত বছরের শিশু রিমার লাশ। গতকাল মঙ্গলবার সকালে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশের ধারণা, শিশুটিকে অপহরণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। রিমা মানিক হাজির টোলা গ্রামের রুহুল আমিনের মেয়ে। ঘটনার আগের দিন সোমবার থেকে সে নিখোঁজ ছিল। এ ব্যাপারে শিশুটির চাচা থানায় সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করেছিলেন।

নীলফামারী : সদর আধুনিক হাসপাতাল চত্বর থেকে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে অজ্ঞাতপরিচয় বৃদ্ধের (৬৭) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নীলফামারী সদর থানার ওসি মমিনুল ইসলাম ও হাসপাতালটির আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা. মো. রাশেদুজ্জামান জানান, তিনি কথা বলতে পারতেন না। এলাকাবাসী ও পুলিশ একাধিকবার তাঁকে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করেছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা