kalerkantho

সোমবার । ২৩ চৈত্র ১৪২৬। ৬ এপ্রিল ২০২০। ১১ শাবান ১৪৪১

ব্যাংক থেকে বিধবার ভাতার টাকা গায়েব

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বগুড়ার ধুনটে ব্যাংক থেকে বিধবা হাসিনা খাতুনের ১৯ মাসের ভাতার সাড়ে ৯ হাজার টাকা গায়েব হয়ে গেছে বলে অভিযোগ। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে তিনি গতকাল রবিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে আবেদন করেছেন।

হাসিনা মহিশুরা গ্রামের আবুল হোসেন মণ্ডলের (মৃত) স্ত্রী। 

জানা যায়, মহিশুরার আছাব আলীর (মৃত) স্ত্রী ছালেকা খাতুনের নামে ২০১২ সালে বিধবা ভাতার কার্ড হয়। তিনি রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ধুনটের মথুরাপুর শাখা থেকে মাসে ৫০০ টাকা করে বিধবা ভাতা তুলছিলেন। এ অবস্থায় ২০১৭ সালে ছালেকার মৃত্যু হয়। পরে তাঁর ভাতার কার্ডটি একই গ্রামের হাসিনার নামে প্রতিস্থাপন করা হয়।

২০১৮ সালের জুলাই মাস থেকে ভাতাভোগী হয়েছেন হাসিনা খাতুন। ওই ব্যাংকের মথুরাপুর শাখায় টাকা তুলতে গিয়ে তিনি দেখেন তাঁর হিসাব নম্বরে এক টাকাও জমা নেই।

এ বিষয়ে ওই ব্যাংকের মথুরাপুর শাখার ব্যবস্থাপক আব্দুল মোমিন বলেন, ‘কেউ একজন কৌশল করে বিধবা ভাতার টাকা ব্যাংক হিসাব নম্বর থেকে তুলে নিয়ে গেছে। তবে বিধবা কার্ডধারীকে টাকা পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে।’

উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন সরকার বলেন, ‘ব্যাংক কর্মকর্তা বিষয়টি আমাকে জানিয়েছেন। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পরিষদের সদস্যদের নিয়ে একটি সভা করা হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যেই ওই বিধবার টাকার ব্যবস্থা করা হবে।’

ইউএনও রাজিয়া সুলতানা বলেন, ‘বিধবার আবেদনের বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা