kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ নিয়োগ কার্যক্রমে

বেরোবি প্রতিনিধি   

২৯ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ নিয়োগ কার্যক্রমে

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞাপিত চারটি সহকারী রেজিস্ট্রার পদে নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। গত সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের চার কর্মকর্তার রিটের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোশাররফ হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই রুল জারি করেন। একই সঙ্গে ওই চার কর্মকর্তাকে ওই চার পদে কেন পুনর্বহাল করা হবে না, তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট এবং আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

মামলার বরাত দিয়ে অ্যাডভোকেট হাসনাত কাইয়ুম বলেন, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-রেজিস্ট্রার মো. তারিকুল ইসলাম, মো. জিয়াউল হক, সাহানা পারভীন ও মোছা. শাফিয়া শবনম ২০০৯ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে সেকশন অফিসার পদে যোগদান করেন। নীতিমালা অনুযায়ী, সহকারী রেজিস্ট্রার পদে পদোন্নতির জন্য তাঁরা আবেদন করেন। সহকারী রেজিস্ট্রার শূন্য পদ না থাকায় ২০১৪ সালের ৩০ সেপ্টেম্বরে ৪২তম সিন্ডিকেট সভার অনুমোদনক্রমে কর্তৃপক্ষ তাঁদের সহকারী রেজিস্ট্রারে পদোন্নতি দেয়। পরে সহকারী রেজিস্ট্রারের পদ শূন্য হওয়ায় ২০১৫ সালের ১৭ এপ্রিলে ৪৩তম সিন্ডিকেট সভায় এই চারজনকে ওই শূন্য পদে (সহকারী রেজিস্ট্রার) প্রতিস্থাপন করা হয়। ফলে চারটি সেকশন অফিসার (গ্রেড-১) পদ শূন্য হয়। ২০১৭ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি ওই চারটি পদসহ পাঁচটি সেকশন অফিসার (গ্রেড-১) পদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেয় কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মোস্তফা কামালের সঙ্গে কথা বলতে তাঁর দপ্তরে গেলে জানা যায় তিনি ঢাকায় আছেন। পরে তাঁকে ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। ভিসি ড. নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহকেও তাঁর দপ্তরে পাওয়া যায়নি। পরে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি। যে কারণে এ বিষয়ে তাঁর বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা