kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সুজানগরে আ. লীগে সংঘর্ষ, আহত ১০

পাবনা প্রতিনিধি   

২৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদ্‌যাপন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে পাবনার সুজানগর উপজেলার আহম্মদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। বেশ কয়েকটি ঘরবাড়ি ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে। এমনকি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিকেও লাঞ্ছিত করা হয়। গতকাল রবিবার দুপুরে ও এর আগে শনিবার (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

দলীয় ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদ্‌যাপন কমিটি গঠন নিয়ে গত শনিবার সন্ধ্যায় আহম্মদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ বিরাহীমপুর মীর্জা আব্দুর রশিদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বর্ধিতসভার আয়োজন করে। সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আব্দুল ওহাব কমিটি ঘোষণা করেন। কিন্তু ওই কমিটি নিয়ে উপস্থিত অন্য নেতাকর্মীরা আপত্তি তোলেন। এ নিয়ে বাগিবতণ্ডার একপর্যায়ে চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও ধাওয়াধাওয়ির ঘটনা ঘটে। এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আব্দুল ওহাবকে লাঞ্ছিত করে প্রতিপক্ষ। পরে কোনো কমিটির ঘোষণা না দিয়েই সভার কাজ শেষ হয়।

এদিকে ওই ঘটনার জের ধরে গতকাল দুপুরে আহম্মদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুর রশিদ এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আনোয়ার হোসেন বাবুর লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।  এতে ১০ জন আহত হয়। তাদের পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবীর কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদ্‌যাপন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটায় কমিটি গঠন স্থগিত করা হয়েছে।’

সংঘর্ষের বিষয়ে উপজেলার আমিনপুর থানার ওসি মোমিনুল ইসলাম বলেন, শান্তি-শৃঙ্খলা যারাই বিঘ্নিত করেছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা