kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

মহান বিজয় দিবস আজ

‘শহীদ স্মৃতি হল’ নামকরণ দাবি

একাত্তরের টর্চার সেল রংপুর টাউন হল

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর   

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘শহীদ স্মৃতি হল’ নামকরণ দাবি

মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি সেনাদের টর্চার সেল হিসেবে ব্যবহৃত রংপুর টাউন হল। ছবি : কালের কণ্ঠ

মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি সেনাদের টর্চার সেল হিসেবে ব্যবহৃত রংপুর টাউন হলকে ‘শহীদ স্মৃতি হল’ নামকরণের দাবি জানিয়েছেন জেলার মুক্তিযোদ্ধাসহ সাংস্কৃতিককর্মীরা। গত শনিবার সন্ধ্যায় টাউন হল চত্বরে ‘শহীদ স্মৃতি হল’ নামকরণে গণস্বাক্ষর কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে এ দাবি জানান তাঁরা।

রংপুর টাউন হলে ১৯৭১ সালের ৯ মাসজুড়ে চলে হানাদার বাহিনীর নারকীয় তাণ্ডব। পাকিস্তানি হানাদাররা টাউন হলটিকে বানিয়েছিল কনসেনট্রেশন ক্যাম্প অর্থাৎ টর্চার ক্যাম্প। মুক্তিকামী নিরপরাধ বাঙালিদের ধরে এনে এখানে চালানো হতো নির্মম নির্যাতন। বাঙালি রমণীদের ধরে এনে এখানে আটকে রেখে দিনের পর দিন করা হতো ধর্ষণ। পরে একসময় তাঁদের হত্যা করা হতো। অসহায় নারী-পুরুষের আর্তচিৎকারে ভারী হয়ে উঠত রংপুর টাউন হল এলাকা। নির্মম নির্যাতনের পর একসময় তাঁদের হত্যা করে বরইগাছের নিচে অথবা পাশের তৎকালীন উদ্ভিদ উদ্যান কেন্দ্রের আমবাগানে মাটিচাপা দেওয়া হতো।

স্বাধীনতার এত বছর পরও সেখানে কতজনকে হত্যা করা হয়েছিল, কারা শহীদ হয়েছেন—তাঁদের কোনো তালিকা তৈরি হয়নি। রংপুর টাউন হল টর্চার কেন্দ্রে সেই নারকীয় হত্যাযজ্ঞ ও নির্যাতনের কোনো নিদর্শন নেই। এমনকি স্বাধীনতার ৪৮ বছর পেরিয়ে গেলেও কেউ একটি সাইনবোর্ড লাগানোরও উদ্যোগ নেননি। সম্প্রতি একটি সংগঠন রংপুর টাউন হলকে ‘শহীদ স্মৃতি হল’ হিসেবে ঘোষণা দিলেও তা আজও বাস্তবায়িত হয়নি।

গত শনিবার সন্ধ্যায় টাউন হল চত্বরে ‘শহীদ স্মৃতি হল’ নামকরণে গণস্বাক্ষর কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ-৭১ রংপুর জেলা সভাপতি কমরেড শাহাদত হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন অধ্যাপক আব্দুস সোবহান, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির রংপুর জেলা সভাপতি ডা. মফিজুল ইসলাম মান্টু, সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন লাবলু, মুক্তিযোদ্ধা নৃপেন্দ্র নাথ, নাট্যব্যক্তিত্ব বিপ্লব প্রসাদ, জাসদ নেতা গৌতম রায়, সাংবাদিক মানিক সরকার মানিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মনোয়ারা বেগম, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ-৭১ রংপুর জেলা সহসভাপতি আতোয়ারুজ্জামান লাঞ্চু, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম মুকুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম জীবন প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা