kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বড়াইগ্রামে ইউএনওর সই জাল করে খাল দখল!

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি   

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নাটোরের বড়াইগ্রামে ইউএনও আনোয়ার পারভেজের স্বাক্ষর, স্মারক নম্বরসহ অফিস আদেশ জালিয়াতি করে একটি খাল অবৈধভাবে দখলের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের গড়মাটি গ্রামের সদ্য সংস্কার করা কাঁটাখালী খালটি দখলে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্থানীয় একটি সংঘবদ্ধ গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে।

গড়মাটি এলাকার গ্রাম পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডা. আবু আসলাম বাবুল, সাধারণ সম্পাদক লুত্ফর রহমান ও কৃষক নাজিম উদ্দীন সরদার জানান, গড়মাটি ও ধানাইদহ এলাকার বৃহৎ বিলের পানি বের হওয়ার জন্য কাঁটাখালী খালটি সম্প্রতি বিএডিসির মাধ্যমে সংস্কার করা হয়। কিন্তু সেই খালটি একটি সংঘবদ্ধ চক্র দখল করে মাছ চাষ শুরু করেছে। ফলে সংস্কারের আসল উদ্দেশ্য বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। তাঁরা আরো জানান, এই ঘটনার নেপথ্যে রয়েছেন গড়মাটি গ্রামের আব্দুস সামাদ, মাহফুজুর রহমান (মাহফুজ), ইনছর আলী ও মাসুদ রানা। অভিযুক্ত ব্যক্তিরা পাঁচ লাখ টাকার বিনিময়ে খালটি লিজ নিয়েছে বলে দাবি করে এবং তাঁর স্বপক্ষে ইউএনও আনোয়ার পারভেজ স্বাক্ষরিত একটি আদেশের কপি দেখায়। গত ১২ মে তারিখে স্বাক্ষরিত আদেশে দেখা যায়, খালটি গড়মাটি মৎস্যজীবী যুব উন্নয়ন সমবায় সমিতির সভাপতি আব্দুস সামাদের নামে তিন বছরের জন্য পাঁচ লাখ টাকায় লিজ প্রদান করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে আব্দুস সামাদের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি। এ বিষয়ে বড়াইগ্রামের ইউএনও আনোয়ার পারভেজ বলেন, ‘খালটি উন্মুক্ত, এটি লিজের আওতায় নয়, তাই লিজ দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। আর স্মারক নম্বরসহ প্রদর্শিত কাগজটি আমার অফিসের নয়। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা