kalerkantho

সোমবার । ২০ জানুয়ারি ২০২০। ৬ মাঘ ১৪২৬। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

রাজশাহী

ওসির কক্ষে যুবলীগ নেতার জন্মদিন

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ওসির কক্ষে যুবলীগ নেতার জন্মদিন

রাজশাহী নগরীর চন্দ্রিমা থানার ওসি গোলাম মোস্তফার কক্ষে গত রবিবার রাতে জন্মদিন উদযাপন করেছেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগর যুবলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক তৌহিদুল হক সুমন। ছবি : ফেইসবুক

রাজশাহী নগরীর চন্দ্রিমা থানার পরিদর্শক (ওসি) গোলাম মোস্তফার কক্ষে জন্মদিন উদযাপন করেছেন এক যুবলীগ নেতা। ওসির উদ্যোগে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগর যুবলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক তৌহিদুল হক সুমনের জন্মদিন পালন করা হয়। গত রবিবার রাতের অনুষ্ঠানের ছবি পরে যুবলীগ নেতা সুমন তাঁর ফেসবুকেও পোস্ট করেন। এ নিয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন মহলেও সমালোচনা চলছে।

স্থানীয়দের দাবি, গোলাম মোস্তফা সম্প্রতি চন্দ্রিমা থানায় যোগ দেন। এর পর থেকে বিভিন্ন সময়ে সুমনের দ্বারা নানা সুযোগ-সুবিধা নিয়ে থাকেন। এ কারণে তাঁকে ডেকে নিয়ে থানায় জন্মদিনের আয়োজন করেন। এটি তিনি করতে পারেন না। এ ছাড়া সুমন একজন বিতর্কিত নেতা। তাঁর বিরুদ্ধে রয়েছে নানা অভিযোগ। ‘ওসি তাঁর কক্ষে সুমনের জন্মদিনের কেক কেটে নৈতিকতা হারিয়েছেন’ বলেও মন্তব্য করেন অনেকে।

প্রত্যক্ষদর্শী পুলিশ সদস্যরা জানান, রবিবার রাত ৮টার দিকে সুমনকে ডেকে নেওয়া হয়। সুমন থানায় গেলে তাঁকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। পরে কেক কাটার সময় গোলাম মোস্তফাসহ পরিদর্শক (তদন্ত) শরিফুল ইসলাম এবং আরো একজন পুলিশ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। কেক কাটার পরে সুমন সেই ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। পোস্টে সুমন লেখেন, ‘চন্দ্রিমা থানার ওসি সাহেব গোলাম মোস্তফার ম্নেহময় ভালোবাসায়।’

এদিকে মহানগর পুলিশের একাধিক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘থানায় যুবলীগ নেতা বা ওয়ার্ড কাউন্সিলরের জন্মদিন পালনের বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মাঝে এ নিয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছে। এ নিয়ে ওসিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। তিনি কাজটি করে নিজের নৈতিকতা হারিয়েছেন।’

জানতে চাইলে যুবলীগ নেতা তৌহিদুল হক সুমন বলেন, ‘গত রবিবারে ওসির কক্ষে কেক কাটা হয়েছিল। কিন্তু ছবিটি দেরিতে পেয়েছি। তাই পোস্ট গতকালকে (সোমবার) দেওয়া হয়েছে।’

তবে বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে ওসি (তদন্ত) শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘মনে হচ্ছে না এই ধরনের আয়োজনের কথা। তবে হতেও পারে।’ জানতে চাইলে ওসি গোলাম মোস্তফাকে বারবার ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা