kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

মালয়েশিয়া থেকে লাশ হয়ে ফিরলেন ইব্রাহিম

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মালয়েশিয়া থেকে লাশ হয়ে ফিরলেন ইব্রাহিম

ভাগ্য পরিবর্তনের আশায় ধারকর্জ করে মালয়েশিয়া গিয়েছিলেন ইব্রাহিম মিয়া (৩৫)। কিন্তু ভাগ্য বিড়ম্বনার শিকার হয়ে গত শুক্রবার লাশ হয়ে ফিরলেন তিনি। কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জের জয়কা ইউনিয়নের দক্ষিণ নানশ্রী গ্রামের মৃত তাহের উদ্দিনের ছেলে ইব্রাহিম। তাঁর লাশ গতকাল শনিবার গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে। বিদেশ যাওয়ার আগে দিনমজুরের কাজ করতেন ইব্রাহিম। স্ত্রী ও দুই সন্তানের সংসারে সচ্ছলতা ফিরছিল না। ধারকর্জ করে ২০১৬ সালের প্রথম দিকে চলে যান মালয়েশিয়া। ভালোই চলছিল সব কিছু। নিয়মিত বাড়িতে টাকা পাঠাতেন।

পরিবারের লোকজন জানান, মালয়েশিয়ার পাহাং রাজ্যের বেনটাং জেলায় একটি পামবাগানে কাজ করতেন ইব্রাহিম। ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় প্রায় আট থেকে ৯ মাস আগে সেখানে অবৈধ হয়ে যান। এরই মধ্যে সেখানে ঘটে আরেক দুর্ঘটনা। ওই এলাকায় একটি চুরির ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে তাঁকে গত ১৮ অক্টোবর গ্রেপ্তার করে পুলিশ। দেড় মাসের সাজা দেওয়া হয় তাঁকে। কিন্তু জেলে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। গত ১৬ নভেম্বর জেল থেকে চিকিৎসার জন্য তাঁকে হাসপাতালে পাঠায় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছার আগেই পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

ইব্রাহিমের বড় ভাই আমির উদ্দিন জানান, সেখানকার এক বাংলাদেশিকে দিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাঁর ছোট ভাইয়ের মৃত্যু সংবাদটি দেয়। এরপর স্থানীয় দূতাবাস ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের চেষ্টায় মরদেহ দেশে আসে।

স্ত্রী তারমিন জানান, ‘আমার স্বামীকে অহেতুক পুলিশ ধরে জেলে দিয়েছিল। অসুস্থ হয়েছে, চিকিৎসাও দেয়নি। অবস্থা খারাপ পর্যায়ে যাওয়ায় তাঁকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। তখন আর ডাক্তারদের কিছুই করার ছিল না। এখন ছোট দুই সন্তান নিয়ে সামনের দিনগুলো কিভাবে যাবে, সে দুশ্চিন্তাই করছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা