kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

কমলগঞ্জে ‘নিপীড়ক’ বাবা গ্রেপ্তার

পৃথক স্থানে তিন শিশুকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কমলগঞ্জে ‘নিপীড়ক’ বাবা গ্রেপ্তার

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে বাবার বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে (৩৫) গত বুধবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী ও বাগেরহাটের রামপাল উপজেলায় দুই শিশুকে ধর্ষণ ও নাটোরের বাগাতিপাড়ায় এক শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার রাতে ঘুমের মধ্যে মেয়েকে যৌন নির্যাতন করেন বাবা। পরের দিন সকালে বাবা বাড়ির বাইরে চলে যান। মেয়েটি ঘুম থেকে উঠে বিষয়টি বাড়ির লোকজনকে জানায়। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অসুস্থ মেয়েটিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেন চিকিৎসক। এ ঘটনায় বুধবার রাতে মেয়েটির নানা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কমলগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। থানার ওসি আরিফুর রহমান বলেন, গতকাল বৃহস্পতিবার অভিযুক্তকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

রামপাল (বাগেরহাট) : বুধবার সকালে রামপাল উপজেলায় দুই বছরের শিশুকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। এ ঘটনায় গতকাল রামপাল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। এর আগে বুধবার রাতে অভিযুক্ত শেখ ইনামুলকে (২১) আটক করে পুলিশ। তিনি উপজেলার বাঁশতলী গ্রামের শেখ দাউদ আলীর ছেলে। থানা সূত্র জানায়, ইনামুল শিশুটিকে একটি বসতঘরের পেছনে বাথরুমে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এতে শিশুটির রক্তক্ষরণ হয়। শিশুটিকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) : কাশিয়ানীতে দ্বিতীয় শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণে অভিযুক্ত মো. শাহবুদ্দিন চৌধুরী (২৫) উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের ব্যাসপুর গ্রামের মো. আনোয়ার চৌধুরীর ছেলে। জানা গেছে, গত মঙ্গলবার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীটি বাড়িতে একা ছিল। এ সময় শাহবুদ্দিন শিশুটিকে বাড়ির পাশে একটি শিমক্ষেতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন। ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয় সমাজপতিরা সমাধান করবেন বলে তাকে গোপনে চিকিৎসা করা হয়। বুধবার বিকেলে বিষয়টি জানতে পেরে কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠান এবং অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালান। তবে শাহাবুদ্দিন পালিয়ে যান। বুধবার রাতেই শিশুটিকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল শিশুটিকে নিয়ে গোপালগঞ্জ হাসপাতালে পরীক্ষা করায় পুলিশ।

নাটোর : বাগাতিপাড়ার ঘটনায় অভিযুক্ত আমিন সরদার পাঁকা ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য। এ ঘটনায় শিশুটির পরিবার থানায় মামলা করেছে। পরিবার জানায়, গত ২৫ নভেম্বর সকালে শিশুটি মায়ের সঙ্গে ফুপুর বাড়ি যাচ্ছিল। পথে আমিন সরদারের সঙ্গে তাদের দেখা হয়। শিশুটির মা আমিনকে তাঁর ব্যবহৃত বাইসাইকেলে করে শিশুটিকে ফুপুর বাড়ি পৌঁছে দিতে বলেন। আমিন কিছুদূর গিয়ে কৌশলে শিশুটিকে সাইকেল থেকে নামিয়ে পাশের আমবাগানে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করেন এবং কাউকে কিছু না বলতে ভয়ভীতি দেখান। পরে শিশুটি মাকে বিষয়টি জানালেও বাড়িতে পুরুষ সদস্য না থাকায় থানায় অভিযোগ করতে পারেননি। গত শনিবার (৩০ নভেম্বর) শিশুটিকে সঙ্গে নিয়ে তার চাচা বাগাতিপাড়া মডেল থানায় মৌখিক অভিযোগ করেন। তদন্তে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পায়। এরপর শিশুটির সত্ভাই থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে বুধবার মামলাটি রেকর্ড করে পুলিশ।

থানার ওসি আব্দুল মতিন বলেন, অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা