kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

কাভার্ড ভ্যানে গ্যাস বিক্রি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুরের রায়পুর ও রামগঞ্জের দুটি জনবহুল স্থানে কাভার্ড ভ্যানে সিলিন্ডার রেখে বিপজ্জনক উপায়ে সিএনজি গ্যাস বিক্রি করা হচ্ছে। ঝুঁকিপূর্ণ ভ্রাম্যমাণ এসব স্টেশন থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও অন্যান্য যানবাহনে গ্যাস সরবরাহ করা হয়। স্থানীয় কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতার মদদে এ কার্যক্রম চলছে।

এদিকে গত ১৯ আগস্ট রায়পুরের কাভার্ড ভ্যানের গ্যাস স্টেশনে অভিযান চালিয়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। তখন স্টেশনটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। অভিযোগ রয়েছে, অভিযানের পর কয়েক দিন বন্ধ থাকলেও প্রশাসনকে ম্যানেজ করে আবারও গ্যাস স্টেশনটি চালু করা হয়। এখনো তা চালু রয়েছে। পাম্পগুলো বন্ধে প্রশাসনও তৎপর নয়। এ নিয়ে স্থানীয়রা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে।

অন্যদিকে সরকারের শীর্ষস্থানীয় একটি গোয়েন্দা সংস্থা লক্ষ্মীপুর থেকে এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রতিবেদন পেশ করেছে। তাতে প্রশাসনের দায়িত্বহীন ভূমিকার কথা উল্লেখ করে দুর্ঘটনা এড়াতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয় বলে জানা গেছে।

গত আগস্টে অনুষ্ঠিত জেলা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কমিটির সভায় অবৈধভাবে গ্যাস সরবরাহের বিষয়টি উত্থাপন করেন রায়পুর পৌরসভার মেয়র ইসমাইল খোকন। তিনি বলেন, সড়কের পাশে কাভার্ড ভ্যানে রাখা সিলিন্ডার থেকে গ্যাস বিক্রি করা হচ্ছে। জনবসতিপূর্ণ এলাকায় এটি স্থাপন করায় যেকোনো সময় দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। দুর্ঘটনার আগেই জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রায়পুর ও রামগঞ্জে কাভার্ড ভ্যানে রেখে গ্যাস বিক্রি করছে স্বদেশ গ্লোরি অ্যাগ্রো নামের একটি প্রতিষ্ঠান। রায়পুর উপজেলার চরপাতার সিংহেরপুলে ও রামগঞ্জ পৌরসভার আঙ্গারপাড়ার জোড় কবরস্থান এলাকায় প্রতিষ্ঠান দুটি কাভার্ড ভ্যানে গ্যাস বিক্রি করছে।

স্বদেশ গ্লোরি অ্যাগ্রো গ্যাস স্টেশনের পরিচালক আল আমিন ও মুজিব উল্লা পাটোয়ারী দাবি করছেন, তাঁদের স্টেশনে জৈব গ্যাস এনে যানবাহনে সরবরাহ করা হচ্ছে। এতে ঝুঁকির কিছু নেই। সারা দেশে এ ধরনের আরো গ্যাস স্টেশন রয়েছে।

লক্ষ্মীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক ইকবাল হোসেন বলেন, অনুমোদন ছাড়াই জনবহুল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ স্টেশনগুলো গ্যাস বিক্রি করছে। কর্তৃপক্ষকে গ্যাস পাম্পগুলো বন্ধ করতে বলা হলেও করছে না। এটি বন্ধ না হলে যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা