kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার ফজলুল হক চৌধুরী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগ উঠেছে। রয়েছে কৌশলে শিক্ষকদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগও। এ ব্যাপারে সম্প্রতি ওই কলেজের ৩৫ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ জানান। অভিযোগপত্রটি গত ৩ নভেম্বর জমা দিলেও গত শনিবার রাতে তা জানাজানি হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, তারাকান্দা সদর এলাকায় ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় কলেজটি। ২০১০ সালে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়। প্রতিষ্ঠানটির জমিদাতা হিসেবে কলেজের অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেন হোসেন আলী। গ্রামের ধারাকান্দি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে তিনি প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে রয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন।

কলেজের পৌরনীতি ও সুশাসন বিভাগের প্রভাষক মো. আনিসুর রহমান ও সহকারী লাইব্রেরিয়ান সাবিনা ইয়াসমিন লিখিত অভিযোগে বলেন, লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে ২০১৪ সালের ১৭ নভেম্বর মাসিক তিন হাজার টাকা বেতনে আনিসুর রহমানকে নিয়োগ দেন অধ্যক্ষ হোসেন আলী। ২০১৬ সালে কলেজ শাখায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হন তিনি।

শিক্ষক আনিসুর রহমানের অভিযোগ, কলেজের এমপিওভুক্তির নামে অধ্যক্ষ তাঁর কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা নেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত কলেজ এমপিওভুক্ত হয়নি। অভিযোগ রয়েছে, জালিয়াতির মাধ্যমে নিয়োগ দেখিয়ে আনিসুর রহমানের স্থলে এক নারী শিক্ষিকাকে বহাল করতে চান অধ্যক্ষ। আনিসুর রহমানকেও কলেজে আসতে নিষেধ করেন তিনি।

অধ্যক্ষ হোসেন আলী বলেন, ‘কলেজ এমপিওভুক্ত না হওয়ায় আমার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে।’

তারাকান্দা উপজেলার নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা চিত্রা শিকারি বলেন, অভিযোগটি তিনি জানতে পেরেছেন। শিগগিরই তা খতিয়ে দেখবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা