kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

তালায় ফসলি জমি দখল

তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইট পোড়ানো নিয়ন্ত্রণ নীতিমালাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার জেঠুয়ায় কৃষি জমিতে গড়ে উঠেছে ইটভাটা। এতে পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

এলাকাবাসী জানায়, শুরু থেকেই ভাটা মালিকরা জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রায় ৩০০ কোটি টাকা ব্যয়ে খনন করা কপোতাক্ষ নদের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের মাটি কেটে নিচ্ছে। এ ছাড়া কৃষকদের প্রলুব্ধ করেও ফসলি জমির মাটি কেটে ভাটা পরিচালনা করে আসছে। এতে কমে যাচ্ছে কৃষিজমি। ভাটার কারণে জেঠুয়ার হাট-বাজার, জালালপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, জাগরণী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, এতিমখানা, জেঠুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোষপাড়া ও মালোপাড়ার লোকজন পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন। তাঁরা অবৈধ এ দুই ভাটার কার্যক্রম বন্ধ করতে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

জানা গেছে, উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের জেঠুয়ায় ফসলি জমিতে গড়ে উঠছে বিসমিল্লাহ ব্রিকস ইটভাটা। গত ২৫ জুন এর উদ্বোধন হয়। এর কিছুদিন আগে একই এলাকায় মুন ব্রিক্স নামের আরেকটি ইটভাটার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। দুটি ভাটাই নিয়মবহির্ভূতভাবে পরিচালনা করা হচ্ছে। 

এ ব্যাপারে তালা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা শুভ্রাংশু শেখর দাশ বলেন, ভাটার তদন্ত প্রতিবেদন তাঁর কাছে রয়েছে। তবে ট্রেনিংয়ের কারণে বাইরে থাকায় এখনো প্রতিবেদনটি সংশ্লিষ্ট বিভাগে জমা দিতে পারেননি।

তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন জানান, তিনি উপজেলায় নতুন এসেছেন। ভাটার বিষয়ে এখনো পর্যন্ত তাঁর কাছে কেউ অভিযোগ করেনি। তবে এলাকাবাসী ক্ষতিকর দিকগুলো তুলে ধরে লিখিত অভিযোগ করলে অবশ্যই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা