kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

উলিপুরে পোড়াচ্ছে গাছ ও টায়ার

উলিপুর (কুড়িগাম) প্রতিনিধি   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উলিপুরে পোড়াচ্ছে গাছ ও টায়ার

এইচ এম ব্রিকসে কয়লার পরিবর্তে পোড়ানো হয় গাছের গুঁড়ি ও টায়ার। ছবি : কালের কণ্ঠ

কুড়িগ্রামের উলিপুরে একটি ইটভাটায় কয়লার পরিবর্তে পোড়ানো হচ্ছে টায়ার। অভিযোগ রয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে ওই ভাটার মালিক স্থানীয় প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে নির্বিঘ্নে এসব পরিবেশ পরিপন্থী কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছেন।

সরেজমিনে গত রবিবার দুপুরে উপজেলার পাণ্ডুল ইউনিয়নের মিনাবাজার এলাকায় মফিজল হকের মালিকাধীন এইচ এম বি ব্রিকসে গিয়ে দেখা যায়, ট্রাকে করে প্রকাশ্যে বিভিন্ন প্রজাতির গাছের গুল, //কাঠ, বাঁশ ও টায়ার সংগ্রহ করে তা ভাটায় স্তূপ করে রাখা হয়েছে।

ভাটা শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ভাটায় ইট তৈরি করতে কয়লার পাশাপাশি জ্বালানি হিসেবে টায়ারও ব্যবহার করা হয়। শুধু কয়লা দিয়ে ইট পোড়ালে অনেক খরচ পড়ে। উপজেলার আরো কয়েকটি ইটভাটা ঘুরে একই চিত্র লক্ষ করা গেছে। শুধু তাই নয়, এসব ইটভাটায় শিশু শ্রমিকদেরও কাজে লাগানোর অভিযোগ রয়েছে।

অভিযোগ অস্বীকার করে ভাটা মালিক মফিজল হক বলেন, ‘আমার ভাটায় একটা কঞ্চিও পোড়ানো হয় না।’ পরিবেশ অধিদপ্তরের কুড়িগ্রাম জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিদর্শক কাজি সাইফুদ্দিন বলেন, ‘কয়লার পরিবর্তে কাঠ বা অন্য কোনো বস্তু পোড়ানো দণ্ডণীয় অপরাধ। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর কাদের বলেন, ‘ইটভাটায় গাছ পোড়ানোর কোনো নিয়ম নেই। যদি কেউ এমন কাজ করে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা