kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

লক্ষ্মীপুরে বিচার চাওয়ায় ছেলে ও নাতিকে পিটুনি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

২০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুর সদরে বৃদ্ধ আবদুস শহিদ হাওলাদারকে মারধরের বিচার চাওয়ায় তাঁর ছেলে ও নাতিকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। গত সোমবার সন্ধ্যায় চরভূতা গ্রামের পশ্চিম বাজারে ঘটনাটি ঘটে।

আহতরা হলেন শহিদের ছেলে নুরনবী ও মেয়ের ঘরের নাতি রিপন। তাঁদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ, সোমবার বিকেলে শহিদের ঘরের পাশে খোলা জায়গায় আশপাশের শিশু-কিশোররা ক্রিকেট খেলছিল। একপর্যায়ে বল উড়ে বৃদ্ধের গরুর শরীরে গিয়ে লাগে। এ সময় বৃদ্ধের ছোট ছেলে শফিকের স্ত্রী রেখা বলটি কেটে ফেলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কয়েকজন কিশোর তাঁদের ঘরে গিয়ে বৃদ্ধকে মারধর করে। পরে ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মন্তাজ হোসেনের কাছে বিচার চান ভুক্তভোগীরা। বিষয়টি মীমাংসার জন্য তিনি পশ্চিম বাজারে উভয় পক্ষকেই ডাকেন। কিন্তু তিনি আসার আগেই দুই পক্ষ সেখানে উপস্থিত হয়। এ সময় অভিযুক্তদের অভিভাবক কাদের, রনি, তানভীর, তানজীদসহ কয়েকজন শহিদের পারিবারিক দোকান ‘লিমা ফ্যাশন’-এর সাটার ফেলে দোকানটির ভেতরে তাঁর ছেলে ও নাতিকে পিটিয়ে আহত করেন।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য মন্তাজ হোসেন বলেন, ‘বৃদ্ধকে মারধরের ঘটনায় উভয় পক্ষকে ডাকা হয়েছিল। কিন্তু আমি আসার আগেই বৃদ্ধের ছেলে-নাতিকে পেটানো হয়েছে। তবে বিষয়টি আমি মীমাংসা করার চেষ্টা করছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা