kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বুলবুলের তাণ্ডব

সবজিতে সর্বনাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সবজিতে সর্বনাশ

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে টমেটোর ক্ষেত তছনছ। ছবিটি গত সোমবার বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার বাওয়ালীপাড়া থেকে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে গরিব কৃষকদের স্বপ্ন ভেঙে তছনছ হয়ে গেছে। আমন ক্ষেতের পাশাপাশি তাদের শাকসবজির ক্ষেতও নষ্ট হয়ে গেছে। ফলে তাঁরা চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে দিন পার করছেন। খুলনা অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

বাগেরহাট : জেলার বিভিন্ন এলাকার টমেটোর ক্ষেত লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। শত শত বিঘা জমির টমেটোগাছ পচে নষ্ট হয়ে গেছে। এতে লাখ লাখ টাকা লোকসানের মুখে পড়েছেন চাষিরা। গত সোমবার চিতলমারী উপজেলার চরবানিয়ারী, পশ্চিমপাড়া, কৃষ্ণনগর, গরীবপুর, বাওয়ালীপাড়া, দক্ষিণপাড়া, সন্তোষপুর, খড়মখালী, উমাজুড়ি, ডাকাতিয়াসহ বিভিন্ন গ্রামের মাঠে গিয়ে দেখা গেছে, মৎস্যঘেরের দুই পারে সারিবদ্ধ করে রোপণ করা টমেটোগাছ মরে গেছে। গাছের সবুজ পাতা শুকিয়ে বিবর্ণ হয়ে আছে। কোনো কোনো মরা গাছে ছোট-বড় সাইজের টমেটো ঝুলছে। এসব টমেটো ক্রমে পচে যাচ্ছে।

চিতলমারী উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের চিত্তরঞ্জন বসু জানান, ২৫ বিঘা জমিতে হাইব্রিড জাতের টমেটো চাষ করেছিলেন তিনি। টমেটোগাছও অনেক ভালো হয়েছিল। কিন্তু বুলবুলের তাণ্ডবে সব টমেটো গাছ মরে শুকিয়ে গেছে।

চিতলমারী উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা অসিম কুমার দাস জানান, ঝড়ে শুধু চিতলমারী উপজেলায় তিন হাজার বিঘা জমির টমেটো সম্পূর্ণ নষ্ট হয়েছে। বাগেরহাট জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক (ডিডি) রঘুনাথ কর জানান, জেলায় টমেটো, ধানসহ বিভিন্ন ফসলের প্রায় ২৯ কোটি ৩৩ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

খুলনা : ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে খুলনা-সাতক্ষীরা সড়কে ডুমুরিয়া উপজেলার বরাতিয়া গ্রামের অনিমেষ কুমার দের তিন বিঘে জমির পেঁপেক্ষেতটি ভেঙেচুরে শেষ হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে চাষি অনিমেষ কুমার দে বলেন, ‘কমপক্ষে চার লাখ টাকার পেঁপে বিক্রি হতো। কিন্তু ঝড়ে সব শেষ হয়ে গেল।’ ডুমুরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, ‘এ উপজেলা সবজি চাষে বিখ্যাত। এখানে বেশ কয়েকজন পুরস্কারপ্রাপ্ত কৃষক আছেন। এর মধ্যে একজনই পেঁপে চাষি। কিন্তু এবার তিনি খুবই ক্ষতিগ্রস্ত হলেন। তাঁকে সহায়তা করার পরিকল্পনা আছে।’ 

গৌরনদী (বরিশাল) : উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে ৫০ লাখ টাকার সবজির ক্ষেত নষ্ট হয়েছে। তা ছাড়া দুই কোটি ৩০ লাখ টাকার খেসারি ডালের ক্ষেত ও দুই কোটি টাকার পানের বরজ নষ্ট হয়েছে বলে জানা গেছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মামুনুর রহমান জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলার ১০ হাজার ৫০ হেক্টর জমিতে পান, ২০০ হেক্টর জমিতে খেসারির ডাল, সাত হাজার ১০ হেক্টর জমিতে আমন ধান, ১২০ হেক্টর জমিতে শীতকালীন শাকসবজি আবাদ করা হয়েছিল। এর মধ্যে পান, খেসারির ডাল ও শীতকালীন সবজি প্রায় পুরোটাই বিনষ্ট হয়েছে। গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাত জাহান জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা প্রস্তুতের কাজ চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা