kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ফরিদপুরে ছেলেকে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ

আরো পাঁচ স্থানে ছয় মরদেহ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফরিদপুরের সদরপুরে বিষ খাইয়ে সেছলেকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে মায়ের বিরুদ্ধে। একই জেলার ভাঙ্গা উপজেলায় বেয়াই বাড়িতে বৃদ্ধের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। কুমিল্লার দ্বেবীদারে স্ত্রীর লাশ হাসপাতালে রেখে পালিয়েছেন স্বামী। এ ছাড়া আরো তিন জেলায় চার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বিস্তারিত নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

ফরিদপুর : জেলার সদরপুরে সত্মায়ের বিরুদ্ধে তানিম নামের আট বছরের এক শিশুকে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার রাতে উপজেলার ডাঙ্গী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তানিম ওই এলাকার ইব্রাহীম মোল্লা ওরফে রেজাউলের ছেলে। এ ঘটনায় রেজাউল বাদী হয়ে স্ত্রী স্বপ্না বেগমকে একমাত্র আসামি দিয়ে থানায় হত্যা মামলা করেন। পুলিশ সত্মা স্বপ্নাকে গ্রেপ্তার করেছে। সদরপুর থানার ওসি সৈয়দ লুত্ফর রহমান জানান, স্বপ্নাকে গতকাল আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে ফরিদপুরের ভাঙ্গায় বেয়াই বাড়ি থেকে রব মিয়া (৭০) নামের এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত রব মিয়া উপজেলার আলগী ইউনিয়নের পূর্ব আলগী গ্রামের মৃত হাকিম মিয়ার ছেলে। তিনি গত শুক্রবার তাঁর বেয়াই একই ইউনিয়নের গুণপালদী গ্রামের বাসিন্দা কৃষক ওদুদ মোল্লার বাড়িতে বেড়াতে আসেন। ভাঙ্গা থানার ওসি কাজী সাইদুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

চান্দিনা (কুমিল্লা) : চান্দিনা উপজেলার বরকইট ইউনিয়নের শ্রীমন্তুপুর মধ্যপাড়া এলাকা থেকে গতকাল সকালে জাকির হোসেন (৪৮) নামের এক নসিমনচালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। জাকির ওই গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : কমলগঞ্জ উপজেলায় নিপা পাল নামের এক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সে মাধবপুর ইউনিয়নের পাত্রখোলা চা বাগানের নতুন লাইন এলাকার সাধন পালের মেয়ে এবং ভাণ্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

শ্রীবরদী (শেরপুর) : সুদের কিস্তি আর অভাবের তাড়নায় নুর ইসলাম (৩৫) ও নুর মোহাম্মদ ওরফে ঘটটু (৩৮) নামের দুজন আত্মহত্যা করেছেন। শুক্রবার রাতে শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার রানীশিমুল ইউনিয়নের দুটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

দেবীদ্বার (কুমিল্লা) : দেবীদ্বারে বিয়ের পাঁচ মাস না যেতেই লাশ হলেন এক গৃহবধূ। কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করার পর গত শুক্রবার বিকেলে ওই গৃহবধূর লাশ চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেখে পালিয়ে যান স্বামী সাখাওয়াত হোসেন। নিহত গৃহবধূ দেবীদ্বার উপজেলার বরকামতা ইউনিয়নের ব্রাহ্মণখাড়া গ্রামের প্রবাসী মো. কবির হোসেনের মেয়ে মোসা. জান্নাত আক্তার। স্বামী সাখাওয়াত হোসেন একই গ্রামের আবদুল ওহাব মিয়ার ছেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা