kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর অভিযোগ

শিক্ষিকার লাশ কবর থেকে তুলে ময়নাতদন্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর অভিযোগ ওঠায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্কুলশিক্ষিকা নওশীন আহমেদ দিয়ার (২৯) লাশ গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কবর থেকে তোলা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তনিমা আফ্রাদের উপস্থিতিতে তাঁর লাশ উত্তোলন করা হয়। পরে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর অভিযোগে বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন প্রসূতি নওশীনের বাবা শিহাব উদ্দিন গেন্দু। আদালত মামলাটি নথিভুক্ত করার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। রাতেই পুলিশ অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে। মামলার আসামিরা হলেন—পৌর এলাকার মুন্সেফপাড়ার খ্রিস্টিয়ান মোমোরিয়াল হাসপাতালের চিকিৎসক ডিউক চৌধুরী, চিকিৎসক অরুনেশ্বর পাল অভি ও চিকিৎসক মো. শাহাদাত হোসেন রাসেল। তাঁদের মধ্যে চিকিৎসক ডিউক চৌধুরী ওই হাসপাতালটির মালিক।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মুন্সেফপাড়া ক্রিসেন্ট কিন্ডারগার্টেন স্কুলের সহকারী শিক্ষিকা নওশীন গর্ভবতী অবস্থায় গত ৩০ অক্টোবর খ্রিস্টিয়ান মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে তাঁর আগাম ডেলিভারির ব্যবস্থা করা হয়। সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে তাঁর কন্যাসন্তান ভূমিষ্ঠ হয়। কিন্তু পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার আগেই নওশীনকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। পরে ৪ নভেম্বর ভোরে নওশীন প্রচণ্ড মাথা ব্যথা অনুভব করলে আবার ওই হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে ভুল চিকিৎসায় তিনি মারা যান বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা