kalerkantho

শুক্রবার । ৩ আশ্বিন ১৪২৭। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০। ২৯ মহররম ১৪৪২

বগুড়ায় প্রতারকচক্রের ৯ সদস্য গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বগুড়ায় প্রতারকচক্রের ৯ সদস্য গ্রেপ্তার

প্রাচীনকালের আদলে বানানো নকল ধাতব মুদ্রা ও ধাতব পদার্থ বগুড়া থেকে গতকাল উদ্ধার করা হয়েছে। ছবি : কালের কণ্ঠ

প্রাচীনকালের নকল ধাতব মুদ্রা ও ধাতব পদার্থ দিয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়া আন্তর্জাতিক প্রতারকচক্রের ৯ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে বগুড়ার ডিবি পুলিশ। গতকাল বুধবার দুপুরে ডিবির ওসি আসলাম আলী এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার ও মালামাল উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার করা মালামালের মধ্যে রয়েছে প্রাচীন ৫৭টি নকল ধাতব মুদ্রা ও তিনটি নকল ধাতব মেটাল।

ডিবি সূত্র জানায়, বগুড়া শহরের মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের সামনে খেলার মাঠ থেকে চক্রের হোতা আজিজার রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর আশপাশের এলাকা থেকে ওই চক্রের সদস্য রুহুল আমিন ও আবু নাছেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছে পাওয়া ধাতব পদার্থটিকে কয়েক হাজার বছরের পুরনো পুরাকীর্তি হিসেবে বলে দেশ-বিদেশে প্রতারণা করা হতো। ওই তিনজনকে গ্রেপ্তার করার পর তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে গাবতলী উপজেলার পদ্মপাড়া থেকে জহুরুল ইসলাম ও সাইদুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়। এই দুজনের বাড়ি শিবগঞ্জের নুরইল শিয়ালী গ্রামে। তাদের কাছে ৫৭টি প্রাচীন ধাতব মুদ্রা পাওয়া যায়।

এরপর পর্যায়ক্রমে প্রতারকচক্রের অন্যতম সদস্য বাছেদ আলী, রোকনদ্দিন, লিটন প্রামাণিক ও গোলাম রব্বানীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে, দেশে-বিদেশে একাধিক চক্রের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ রয়েছে। এসব মুদ্রা এবং ধাতব বস্তুকে মহামূল্যবান হিসেবে তারা ক্রেতার কাছে উপস্থাপন করে। পরে কাঙ্ক্ষিত মূল্যে সেগুলো বিক্রি করে দেয়। এভাবে তারা কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলেও স্বীকার করে। এ ব্যাপারে সদর থানায় মামলা করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা