kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শিবপুরে শিক্ষককে পেটালেন আরেক শিক্ষক

নরসিংদী প্রতিনিধি   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নরসিংদীর শিবপুরের কামরাব উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম তাঁর নিজ কক্ষেই হারুন অর রশীদ নামের অন্য আরেক সহকারী শিক্ষক ও তাঁর স্বজনদের মারধরের শিকার হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষক শিবপুর মডেল থানায় অভিযোগ করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সম্প্রতি বিদ্যালয়ের মাধ্যমিক শ্রেণির ফরম পূরণ শুরু হবে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আখতারুজ্জামান ফরম পূরণের সার্বিক দায়িত্ব দেন আবদুস সাত্তার নামের এক সহকারী শিক্ষককে। কিন্তু তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ায় এ দায়িত্ব দেন সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম ও সহকারী শিক্ষক আবদুস সালামকে। কিন্তু দায়িত্ব না পাওয়ায় ক্ষিপ্ত হন স্থানীয় বাসিন্দা ও বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হারুন। গতকাল সকাল সাড়ে ১১টার দিকে প্রথমে প্রধান শিক্ষককে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করেন হারুন। সেখানে সদুত্তর না পেয়ে তিনি সহকারী প্রধান শিক্ষক রফিকুলের কাছে দায়িত্ব নেওয়ার কারণ জানতে চান। রফিকুল বারান্দায় কথা না বলে কক্ষের ভেতরে গিয়ে কথা বলার জন্য বলা মাত্রই হারুন তাঁর ওপর চড়াও হন। এ সময় তিনি রফিকুলকে কিল-ঘুষি মারতে থাকেন। উপস্থিত শিক্ষকরা তাঁদের ছাড়িয়ে দিলে কিছুক্ষণ পরই হারুন বাড়ি গিয়ে তাঁর ভাই জামাল উদ্দিন ভূঁইয়া, ভাতিজা আজিম উদ্দিন ভূঁইয়া ও রাকিব উদ্দিন ভূঁইয়াকে ডেকে এনে ফের রফিকুলের কক্ষে ঢুকে তাঁর ওপর হামলা করেন।

শিবপুর মডেল থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান জানান, ভুক্তভোগী শিক্ষক একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা