kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পার্বতীপুর

নলকূপ অনুমোদনে অনিয়মের অভিযোগ

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নলকূপ অনুমোদনে অনিয়মের অভিযোগ

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিক নিয়োগের দাবি এবং নিয়োগের কেন্দ্রে দফায় দফায় দরপত্র স্থগিতের প্রতিবাদে গতকাল মানববন্ধন করে স্থানীয়রা। ছবি : কালের কণ্ঠ

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে দীর্ঘ ১৩ বছরের পুরনো সেচ প্রকল্পকে অনুমোদন না দিয়ে বিধিবহির্ভূতভাবে কাছাকাছি স্থানে নতুন আরেকটি সেচ প্রকল্পকে অনুমোদন দিয়েছে উপজেলা সেচ কমিটি। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মোমিনপুর ইউনিয়নের তের আনিয়া গ্রামে।

ওই গ্রামের মৃত তোরাব আলীর ছেলে আজিজার রহমান এক যুগের বেশি সময় ধরে তের আনিয়া মৌজায় ৩৪১/৩৪২ দাগে শ্যালো মেশিন স্থাপনের মাধ্যমে চাষাবাদ ও প্রতিবেশীর জমিতে সেচ সরবরাহ করে আসছেন। জানা যায়, শুরুতেই আজিজার রহমান তাঁর সেচযন্ত্রে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২-এর অধীনে পার্বতীপুর জোনাল অফিসে আবেদন করেন। কিন্তু দীর্ঘদিনেও উপজেলা সেচ কমিটি তাঁর সেচ প্রকল্প অনুমোদন না দেওয়ায় এখনো বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে পারেনি পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ।

এদিকে সম্প্রতি আজিজার রহমানের সেচ পাম্পের পাশেই বিধিবহির্ভূতভাবে আবুল কালাম নামের এক ব্যক্তির অন্যের জমিকে নিজের জমি দেখিয়ে (মৌজা-তের আনিয়া, দাগ-৩৩৭) অগভীর নলকূপ স্থাপন করেন। কোনো সেচ প্রকল্পের সাত শ ফুটের মধ্যে নতুন সেচ প্রকল্প স্থাপনের নিয়ম না থাকলেও উপজেলা সেচ কমিটির সদস্যরা সেটির অনুমোদন দিয়েছে, যা বাতিলের জন্য আজিজার রহমান গত ১২ মে উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতি ও পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত আবেদন করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. শাহনাজ মিথুন মুন্নী বলেন, ‘আমি সম্প্রতি এ উপজেলায় যোগদান করেছি। অভিযোগটি জানার পর বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও বিএডিসির কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছি। প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটির সদস্য ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রাকিবুজ্জামান বলেন, ‘উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে ঘটনাস্থল সরেজমিন পরিদর্শন করেছি। একই স্থানে পাশাপাশি দুটি অগভীর নলকূপ স্থাপনের সত্যতা উল্লেখ করে প্রতিবেদন জমা দিয়েছি।’

বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ পার্বতীপুরের সহকারী প্রকৌশলী বাসুদেব দে জানান, আগামী ৬ নভেম্বর বিষয়টি নিয়ে মিটিং রয়েছে। অভিযোগের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা