kalerkantho

সোমবার । ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১১ রবিউস সানি ১৪৪১     

শাহজাদপুরে অন্তঃসত্ত্বা নারী মিঠাপুকুরে ব্যবসায়ী খুন

তালায় যুবকের লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ ও রংপুরের মিঠাপুকুরে ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ছাড়া সাতক্ষীরার তালায় যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) : শাহজাদপুর উপজেলার বিনোটিয়া ঘোনাপাড়া গ্রামে রিতা খাতুন নামের এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ গত মঙ্গলবার বিকেলে ঘটনাস্থল থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করেছে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য গতকাল বুধবার সকালে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যার বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রিতা চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে তাঁর স্বামী সাইদুর রহমান, শ্বশুর আব্দুর রাজ্জাক, শাশুড়ি নয়নতারা, ননদ রাজিয়া খাতুন ও খালুশ্বশুর মো. মনির বিরুদ্ধে থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। গৃহবধূর বাবা আবুল কাশেম বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন। ঘটনার পর থেকে আসামিরা পলাতক। মামলার এজাহার ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, এক বছর আগে সাইদুরের সঙ্গে রিতার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই টাকার জন্য শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে নির্যাতন করত। হঠাৎ করেই মঙ্গলবার বাবার বাড়িতে খবর দেওয়া হয় যে রিতা মারা গেছেন। খবর পেয়ে বাবার বাড়ির লোকজন শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে রিতার লাশ পড়ে থাকতে দেখে। এ ব্যাপারে শাহজাদপুর থানার ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, রিতাকে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে। আসামিরা পলাতক।’

রংপুর (আঞ্চলিক) : মিঠাপুকুর উপজেলার বাতাসন গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে সাইফুল ইসলাম মণ্ডল নামে এক ব্যবসায়ীকে হত্যার পর লাশ গাছে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার সকালে তাঁর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। স্বজন ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সাত বছর আগে ওই গ্রামের আনিছা বেগমকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন সাইফুল। এরপর থেকে শ্বশুরবাড়িতেই থাকছিলেন তিনি। সেখানে মুদি ও দাদন ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। শ্যালকের স্ত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের জেরে তাঁকে হত্যা করা হতে পারে বলে এলাকাবাসীর ধারণা। অন্যদিকে ময়েনপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক বলেন, ‘(মঙ্গলবার) রাতে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে সাইফুলের ঝগড়া বাধে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে শোরগোলও শোনা যায়। এর জেরে হয়তো তাঁকে হত্যার পর গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হতে পারে।’ মিঠাপুকুর থানার ওসি জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, ‘ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে এলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, সাইফুলকে হত্যার পর গাছের ডালে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।’

সাতক্ষীরা : তালা উপজেলায় ইমরান হোসেন নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার সকালে নগরঘাটা এলাকার সমনডাঙ্গা বিলের একটি মৎস্য ঘের থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। ইমরান যশোরের কেশবপুরের বাঁশবাড়ী গ্রামের রেজাউল ইসলাম গাজীর ছেলে।

পাটকেলঘাটা থানার ওসি কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ জানান, লাশের ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা