kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

উল্লাপাড়ার কমিউনিটি ক্লিনিক

সিএইচসিপির অনিয়মের অভিযোগ

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার বড়হর ইউনিয়নের ব্রহ্মকপালিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকের কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রভাইডার (সিএইচসিপি) সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে কর্মস্থলে অনুপস্থিত, রাজনীতির সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ততা, কালোবাজারে ওষুধ বিক্রি ও রোগীদের সঙ্গে অশোভন আচরণের অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে।

এই কমিউনিটি ক্লিনিক পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও বড়হর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য বাবলু কুমার রায় সিরাজগঞ্জের সিভিল সার্জনের কাছে দেওয়া লিখিত অভিযোগে বলেছেন, সিএইচসিপি সাইফুল ইসলাম সপ্তাহের পাঁচ দিনই কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকেন। সপ্তাহে দুই-এক দিন ক্লিনিকে গিয়ে হাজিরা খাতায় সপ্তাহের সব কর্মদিবসের স্বাক্ষর করেন। তিনি সরকারি চাকরি বিধিমালা উপেক্ষা করে বড়হর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

অভিযোগে বলা হয়, সাইফুল ইসলাম ক্লিনিকটির জন্য বরাদ্দ বিনা মূল্যের সরকারি ওষুধ রোগীদের না দিয়ে কালোবাজারে বিক্রি করেন। তা ছাড়া ক্লিনিকে আসা, বিশেষত মহিলা রোগীদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন। বস্তুত সাইফুলের এ জাতীয় কর্মকাণ্ডের ফলে কমিউনিটি ক্লিনিকটি অকার্যকর হয়ে পড়েছে। স্থানীয়রা এখান থেকে কোনো চিকিৎসাসেবা পাচ্ছে না। অবিলম্বে বিষয়টি তদন্ত করে তাঁর বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়।

সম্প্রতি উল্লাপাড়ার কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মী সরেজমিনে এই ক্লিনিকে গেলে সেখানে সেবা নিতে আসা ব্রহ্মকপালিয়া গ্রামের দুলাল প্রামাণিক, জহুরুল ইসলাম, নাসির উদ্দিন ও চুমকি খাতুন অভিযোগ করেন, সপ্তাহের পাঁচ দিনই ক্লিনিকটি বন্ধ থাকে। এখান থেকে তাঁরা কোনো চিকিৎসাসেবা বা সরকারি ওষুধ পান না। চুমকি খাতুন অভিযোগ করেন, কয়েক দিন আগে এক মহিলা চিকিৎসাসেবা নিতে এলে সাইফুল তাঁর সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন। বিষয়টি স্থানীয়দের জানালে তারা সাইফুলকে লাঞ্ছিত করে। এখন দলীয় প্রভাব দেখিয়ে সাইফুল লাঞ্ছনাকারীদের নানা রকম ভয়ভীতি ও হুমকি দিচ্ছেন। সাইফুল ইসলাম অন্যান্য অভিযোগ অস্বীকার করলেও রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ততার বিষয়টি স্বীকার করেন। এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. জাহিদুল ইসলাম জানান, ওই ক্লিনিকের সিএইচসিপির কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে  ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা