kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

খুলনায় ব্যাটারিচালিত রিকশাচালকদের ধর্মঘট

খুলনা অফিস   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মালিক ও শ্রমিকদের অব্যাহত ধর্মঘটের মধ্য দিয়েই গতকাল মঙ্গলবার থেকে খুলনা সিটি করপোরেশনে (কেসিসি) ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে নগরীতে হাতে গোনা কয়েকটি পায়েচালিত রিকশা ও বিপুলসংখ্যক ব্যাটারিচালিত ইজি বাইক চলাচল করছে। অন্যদিকে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের অনুমতি দিয়ে লাইসেন্স প্রদানের দাবিতে তিন দিনের কর্মসূচি দিয়েছে ব্যাটারিচালিত রিকশা মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। গতকাল দুপুরে খুলনা প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সংগঠনটির কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আজ বুধবার সকালে পিকচার প্যালেস মোড়ে মানববন্ধন, ১৭ অক্টোবর সিটি করপোরেশনের সামনে অবস্থান ধর্মঘট ও হাদিস পার্কে অনশন। পাশাপাশি অনির্দিষ্টকালের জন্য রিকশার ধর্মঘট চলবে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হানিফ সরদার। এতে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সভাপতি মো. ফোরকান, ব্যাটারিচালিত রিকশা মালিক লীগের সভাপতি সেলিম খাঁ ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বন্দ, ব্যাটারিচালিত রিকশা শ্রমিক লীগের সভাপতি আসলাম হোসেন প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে মালিক ও শ্রমিক নেতারা বলেন, ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধ হলে চালকরা পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়বেন। তাঁদের আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেলে ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যাবে। আর রিকশা না চললে স্বল্প আয়ের মানুষের যাতায়াতে দুর্ভোগ পোহাতে হবে।

এদিকে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধ থাকায় ইজি বাইক চালকরা বিভিন্ন রুটে পাঁচ থেকে ১০ টাকা ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছেন। ফলে সাধারণ মানুষ পড়েছে ভোগান্তিতে। আবার রিকশা শ্রমিকরা বলছেন, তাঁরা ব্যাটারি ছাড়া গাড়ি চালাতে চাইলেও মালিকরা গ্যারেজ বন্ধ করে দিয়েছেন। তাই বাধ্য হয়ে রিকশা বন্ধ রাখতে হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা