kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৭ রবিউস সানি ১৪৪১     

গোয়ালন্দে প্রতিপক্ষকে কুপিয়ে হত্যা

যুবলীগ নেতাসহ আটক ৩

রাজবাড়ী ও গোয়ালন্দ প্রতিনিধি   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন চলাকালে প্রতিপক্ষের একজনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম মণ্ডলসহ তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাব। আটককৃতদের ফরিদপুর র‌্যাব-৮ কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

দেবগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান জানান, নিহত পল্লী চিকিৎসক রেজাউল করিম মোল্লা ওরফে আবু ডাক্তারের জানাজা গতকাল দুপুরে অনুষ্ঠিত হয়। তাতে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম মণ্ডলও অংশ নেন। জানাজার পর সেখান থেকেই র‌্যাব সদস্যরা নজরুলকে আটক করে নিয়ে যান।

 

ফরিদপুর র‌্যাব-৮-এর কম্পানি কমান্ডার মেজর হাসান জানিয়েছেন, আবু ডাক্তার হত্যার ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁরা নজরুল ইসলাম মণ্ডলসহ তিনজনকে আটক করেছেন।

এদিকে আবু ডাক্তার হত্যার ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে গতকাল গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে।

পুলিশ, নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দেবগ্রাম ইউপির সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত ১৬ সেপ্টেম্বর। সেখানে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন মো. হাফিজুল ইসলাম। তিনি দেবগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন একই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. আতর আলী সরদার। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। ওই নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে হাফিজুল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তখন থেকে দুই পক্ষের শত্রুতা সৃষ্টি হয়।

স্থানীয়রা জানায়, সিরাজুল ইসলাম বাবলু ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি। গত সোমবার বাবলুর নেতৃত্বে ২০-৩০ জন সম্মেলনে ঢুকতে চান। তখন  আওয়ামী লীগের নেতারা তাঁদের বাধা দেন। এ নিয়ে সন্ধ্যায় যুবলীগ নেতা  বাবলু ও তাঁর সঙ্গীরা মিলে রেজাউল করিম ওরফে আবু ডাক্তারকে কুপিয়ে হত্যা করেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা