kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ আষাঢ় ১৪২৭। ৯ জুলাই ২০২০। ১৭ জিলকদ ১৪৪১

ধর্মপাশা আওয়ামী লীগে উত্তেজনা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুনামগঞ্জ-১ আসনের ধর্মপাশা উপজেলায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত ১ অক্টোবর জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিসভায় স্থানীয় সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনকে কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনে দলে অনুপ্রবেশকারী ঢোকানো নেতা, গডফাদার, চাঁদাবাজ আখ্যায়িত করে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শামীম আহমদ মুরাদ। তাঁর বক্তব্যের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এ নিয়ে মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের অনুসারীরা শামীম আহমদ মুরাদসহ আওয়ামী লীগের রতনবিরোধী নেতাকর্মীদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একহাত নিচ্ছে। উভয় পক্ষেই এখন উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এর আগে গত ৬ অক্টোবর ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্যের অনুসারীরা শামীম আহমদ মুরাদের বক্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দিয়ে প্রচারণা চালায়। এই ঘোষণায় শামীম আহমদ মুরাদের সমর্থকসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশ একই স্থানে পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করলে প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করে। ফলে দুই পক্ষই কর্মসূচি থেকে নিবৃত্ত থাকে। ধর্মপাশায় কর্মসূচি চালাতে না পারলেও সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের অনুসারীরা নির্বাচনী এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে কর্মসূচি চালিয়ে সংসদ সদস্যের পক্ষে কথা বলছে।

এদিকে প্রতিদিনই সংসদ সদস্যের পক্ষে তাঁর সমর্থক ও তাঁর আহ্বানে অন্যান্য দল থেকে আসা নব্য নেতাকর্মীরা মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের পক্ষ নিয়ে শামীম আহমদ মুরাদসহ রতনবিরোধী নেতাদের সমালোচনা করছেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শামীম আহমদ মুরাদ গত ৭ অক্টোবর ফেসবুকে আরেকটি স্ট্যাটাস দেন। তাতে মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের লোকজন তাঁকে হুমকি-ধমকিসহ অপপ্রচার ও নোংরা প্রচার চালিয়ে তাঁর ভাবমূর্তি নষ্ট করার অভিযোগ আনেন। এভাবে ধর্মপাশা উপজেলাসহ নির্বাচনী এলাকার নেতাকর্মীরা এখন বিভক্ত হয়ে বক্তব্য-বিবৃতি দিচ্ছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শামীম আহমদ মুরাদ বলেন, ‘আমি কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনে যে বক্তব্য দিয়েছি তা শতভাগ সত্য।’

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন বলেন, ‘আমরা এমপিকে তৃণমূলের ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের নিয়ে বসে তাঁদের কথাবার্তা শোনার অনুরোধ করেছি।’

সুনামগঞ্জ-১ নির্বাচনী এলাকার বাসিন্দা ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম বলেন, সুনামগঞ্জ-১ আসনের বিভিন্ন এলাকায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা চলছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা