kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

হাজীগঞ্জে বিদ্যালয় ঘেঁষে অবৈধ অটোরিকশাস্ট্যান্ড

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাজীগঞ্জে বিদ্যালয় ঘেঁষে অবৈধ অটোরিকশাস্ট্যান্ড

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় বলাখাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের দেয়াল ঘেঁষে গড়ে উঠেছে অবৈধ অটোরিকশাস্ট্যান্ড ও দোকানঘর। ছবিটি গতকাল তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার বলাখাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দেয়াল ঘেঁষে গড়ে উঠেছে অবৈধ অটোরিকশাস্ট্যান্ড। একই সঙ্গে সেখানে বেশ কয়েকটি টং দোকান নির্মাণ করা হয়েছে। স্থানীয় একটি মহল ওই স্ট্যান্ড থেকে চাঁদা আদায় করছে বলে অভিযোগ। স্কুলের সামনের রাস্তা দিয়ে চলাচল করায় এরই মধ্যে অটোরিকশার ধাক্কায় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহতও হয়েছে।

সম্প্রতি সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মাসখানেক আগে বলাখাল পশ্চিম বাজারে ওই স্কুলের দেয়াল ঘেঁষে গড়ে উঠেছে অটোরিকশাস্ট্যান্ডটি। বলাখাল বাজার-দক্ষিণ বলাখাল প্রতাপপুর গুদারাঘাট সড়কে চলাচলকারী অটোরিকশাগুলো ওই স্ট্যান্ডে থাকে। অন্তত ২০টি অটোরিকশা থাকে ওই স্ট্যান্ডে। স্থানীয় একটি মহল প্রতিদিন ওই অটোরিকশাগুলো থেকে ২০ টাকা করে আদায় করে। স্ট্যান্ডটি পরিচালনার জন্য একটি কমিটি আছে। এ কমিটির সভাপতি দক্ষিণ বলাখাল এলাকার মোজাম্মেল হোসেন মোল্লা আর সাধারণ সম্পাদক অভিনয় চন্দ্র দাস।

অভিযোগের বিষয়ে অভিনয় চন্দ্র বলেন, ‘আমরা নিজেরা স্ট্যান্ড থেকে কোনো ধরনের টাকা নিই না। অটোরিকশাগুলোর সিরিয়াল ঠিক করে দিতে দুজন (লাইনম্যান) এখানে চাকরি করেন। তাঁদের বেতন বাবদ এ টাকা নেওয়া হয়।’

এ ছাড়া ওই স্ট্যান্ডের পাশে বেশ কয়েকটি টং দোকান নির্মাণ করা হয়েছে। স্থানীয় হাতেম আলী, আলী আরশাদ ও মোস্তফা মিয়া দোকানগুলোর মালিক বলে জানা গেছে। এভাবে স্কুলের দেয়াল ঘেঁষে দোকান তোলা কতটা বিধিসম্মত জানতে চাইলে হাতেম আলী বলেন, ‘অন্যরা তাদের দোকান সরিয়ে নিলে আমিও সরিয়ে নেব।’    

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিভাবক অভিযোগ করেন, ‘আমাদের বাচ্চারা স্কুলের গেট দিয়ে ঢুকতে-বের হতে বেশ সমস্যায় পড়ে।’

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ পৌর মেয়র আ স ম মাহবুব উল আলম লিপন জানান, অটোরিকশাস্ট্যান্ডটি অবৈধ। পৌরসভা এ স্ট্যান্ডের কোনো অনুমোদন দেয়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা