kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রাজশাহী

ফুটপাত দখল করে ওয়ার্ড আ. লীগের কার্যালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফুটপাত দখল করে ওয়ার্ড আ. লীগের কার্যালয়

রাজশাহী মহানগরীর তালাইমারী ট্রাফিক মোড়ের পাশে প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়াল ঘেঁষে ফুটপাত দখল করে গড়ে তোলা হচ্ছে আওয়ামী লীগের ২৮ নম্বর ওয়ার্ড শাখার কার্যালয়। ছবিটি গতকাল দুপুরে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজশাহী নগরীর তালাইমারী এলাকায় ফুটপাত দখল করে গড়ে উঠছে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয়। রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাচীর ঘেঁষে এ কার্যালয়টি তৈরি করা হচ্ছে। চার-পাঁচ দিন ধরে এ কার্যালয়টি নির্মাণ করছেন ওই ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এর আগে জায়গাটি টিন ও চাটাই দিয়ে ঘিরে বছরখানেক আগে দখল করা হয়। এখন সেখানে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয় গড়ে তোলা হচ্ছে। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ। 

এলাকাবাসীর দাবি, নগরজুড়ে সম্প্রতি সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ব্যাপক উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়েছে। কিন্তু কয়েক দিন যেতে না যেতেই আবার সেই ফুটপাত দখল করে এখন পাকা ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। মেয়র আওয়ামী লীগের নেতা হওয়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এটি করতে সাহস পাচ্ছেন।

গতকাল শনিবার নগরীর তালাইমারী এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, রুয়েটের প্রাচীর ব্যবহার করে উত্তর দিকে ওয়াল হিসেবে ধরে অন্য তিন দিকে দেওয়া হচ্ছে ইটের গাঁথুনি। ২৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাইনবোর্ড রয়েছে সেখানে। চাটাই দিয়ে ঘেরা এ কার্যালয়টি পাকাকরণের জন্য ইটের গাঁথুনি দিয়ে ঘিরে ফেলা হচ্ছে।

স্থানীয় কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, রুয়েটের প্রাচীর আর ফুটপাত দখল করে এ কার্যালয়টি গড়ে তোলা হচ্ছে। এখানে সাধারণত রাতের বেলা তাস খেলাসহ আড্ডা দেওয়া ছাড়া অন্য কোনো কার্যক্রম দেখা যায় না। এখন সেখানেই পাকা ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে।

তবে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি তালন্দ কুমার বলেন, ‘স্থানীয় নেতাকর্মীদের বসার কোনো জায়গা নেই বলে সেখানে কার্যালয়টি গড়ে তোলা হচ্ছে। এখানে আড্ডা দেওয়া বা তাস খেলার কোনো সুযোগ নেই।’

এদিকে রুয়েটের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, রুয়েটের প্রাচীর ঘেঁষে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড কার্যালয়টি গড়ে ওঠা নিয়ে রুয়েট শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকেও প্রতিবাদ করা হয়েছে। কিন্তু ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতাদের দাপটে রুয়েটের প্রশাসনও এ নিয়ে কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নেয়নি।

এদিকে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা শেখ মামুন ডলার বলেন, উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ হয়নি। এটি চলমান কর্মসূচি। আবারও যেকোনো সময় নগরজুড়ে উচ্ছেদ অভিযান চলবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা