kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মঞ্চের মাইক্রোফোন ভাঙলেন উপজেলা চেয়ারম্যান

জয়পুরহাট প্রতিনিধি   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যানারে নাম না থাকায় ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী মঞ্চের মাইক্রোফোন ভাঙচুর করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা মোস্তাকিম মণ্ডল। এ সময় তিনি খেলা বন্ধের নির্দেশ দিয়ে দলবল নিয়ে মঞ্চ ত্যাগ করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) নির্দেশে খেলা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল সকালে সোয়া ১০টার দিকে জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনূর্ধ্ব-১৭ গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনাকাঙ্ক্ষিত এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ওই টুর্নামেন্টের দাওয়াতপত্রে প্রধান অতিথি হিসেবে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন ও সভাপতি হিসেবে ক্ষেতলাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরাফাত রহমানের নাম দেওয়া হয়। সেখানে উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাকিম মণ্ডলের নাম দেওয়া হয়নি। একইভাবে উদ্বোধনী ব্যানারেও উপজেলা চেয়ারম্যানের নাম ছিল না। এতে তিনি ক্ষুব্ধ হন।

গতকাল সকালে উদ্বোধনী ম্যাচ শুরুর ১০ মিনিট পর উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্চে গেলে মাইকে তাঁর আগমনে শুভেচ্ছা জানানোর সঙ্গে সঙ্গে তিনি মাইক্রোফোন কেড়ে নিয়ে ভেঙে ফেলেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘ব্যানারে নাম নাই, অথচ মাইকে আমার নাম বলা হচ্ছে কেন?’ এরপরই তিনি খেলা বন্ধের নির্দেশ দিয়ে মঞ্চ ছেড়ে চলে যান। পরে ইউএনও আরাফাত রহমানের নির্দেশে খেলা যথারীতি চলে।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরাফাত রহমান ছাড়াও মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ মোল্লা, সহসভাপতি মোফাজ্জল হোসেন, থানার পরিদর্শক সেলিম মালিক, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোফাজ্জল হোসেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম বাবু প্রমুখ। উদ্বোধনী খেলায় আলমপুর ইউনিয়ন ও মামুদপুর ইউনিয়ন অংশ নেয়। এতে নির্ধারিত সময়ে খেলা অমীমাংসিত হলে টাইব্রেকারে ৩-১ গোলে আলমপুর ইউনিয়ন পরিষদ বিজয়ী হয়।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরাফাত রহমান বলেন, ‘এ ঘটনায় চেয়ারম্যান সাহেব যে এভাবে প্রতিক্রিয়া দেখাবেন, তা ভাবতে পারিনি। মাইক্রোফোন ভেঙে তিনি খেলা বন্ধেরও নির্দেশ দিয়েছিলেন। ঘটনাটি দুঃখজনক।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা