kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পঞ্চগড়ে শতভাগ বিদ্যুতায়ন

এবার ট্রান্সফরমার খুলে নিল দালাল

পঞ্চগড় প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিদ্যুতের সংযোগ নিতে দালাল আয়নাল হকের মাধ্যমে ছয় হাজার টাকা করে দিয়েছেন পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের কয়েক গ্রামের ৪০টি পরিবার। আরো দুই হাজার টাকা করে না দেওয়ায় এক বছরেও বিদ্যুতের দেখা মেলেনি তাদের। এমনকি ট্রান্সফরমারটিও সম্প্রতি খুলে নিয়ে গেছেন আয়নাল। এ নিয়ে ভুক্তভোগীরা বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছে।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, দেবীডুবা ইউনিয়নের কামাতপাড়া, অধিকারীপাড়া, সর্দারপাড়া, মুনপাড়া ও স্কুলপাড়ায় পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ দেওয়ার কথা। ২০১৮ সালের মধ্যভাগে মিটারপ্রতি ছয় হাজার টাকা তোলেন পাশের সোনাপোতা গ্রামের দুদু মিয়ার ছেলে আয়নাল হক। স্থানীয়দের কাছে তিনি পল্লী বিদ্যুৎ ও ঠিকাদারের দালাল বলে পরিচিত। চলতি বছরের মার্চে ওই এলাকায় সরকারিভাবে বিদ্যুতের খুঁটি, তার ও ট্রান্সফরমার লাগানো হয়। একপর্যায়ে ঠিকাদার ও পল্লী বিদ্যুতের কথা বলে আয়নাল তাদের কাছে আরো দুই হাজার করে টাকা করে চান। টাকা না দিলে ট্রান্সফরমার খুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেন। ভুক্তভোগীরা অতিরিক্ত দুই হাজার টাকা দিতে অস্বীকার করলে চলতি বছরের জুলাইয়ে খুঁটি থেকে ট্রান্সফরমার খুলে বাসায় নিয়ে যান। এ নিয়ে ভুক্তভোগীরা গত ১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের অনুলিপি দেওয়া হয়েছে পঞ্চগড়-২ আসনের সংসদ সদস্য ও রেলপথ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন, পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক, ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মহাব্যবস্থাপক ও উপমহাব্যবস্থাপককে।

অধিকারীপাড়ার আবু হানিফ বলেন, ‘ছয় হাজার টাকা নিয়েছেন আয়নাল। খুঁটি, তার ও ট্রান্সফরমার লাগানোর পর তিনি আরো দুই হাজার টাকা করে দাবি করেন। আমরা তা দিতে অস্বীকার করায় তিনি ট্রান্সফরমার খুলে তাঁর বাড়িতে নিয়ে যান। এ বিষয়ে আমরা পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে বারবার অভিযোগ করলেও কোনো কাজ হয়নি।’ তিনি আরো বলেন, ‘ডাকাতি, ছিনতাই, জমি দখল, চাঁদাবাজিসহ আয়নালের নামে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। একসময় ছাত্রশিবির করলেও এখন তিনি ক্ষমতাসীন দলের লোকজনের ছত্রচ্ছায়ায় অপরাধকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রভাবশালী হওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায় না।’

অভিযুক্ত আয়নাল হকের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পঞ্চগড় আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপমহাব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামান বলেন, ‘বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা