kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিশ্বনাথে দাফনের ২৮ দিন পর নারীর লাশ উত্তোলন

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আদালতের নির্দেশে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেটের বিশ্বনাথে দাফনের ২৮ দিন পর গতকাল সোমবার আয়ফুল বেগম নামের এক নারীর লাশ উত্তোলন করা হয়েছে। আয়ফুল বেগম উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের দোহাল গ্রামের মৃত ফজর আলীর স্ত্রী। গত ৩ আগস্ট রাতে তিনি তাঁর বসতঘরে মারা যান। পরদিন তাঁকে দাফন করা হয়। আয়ফুলকে হত্যার অভিযোগ এনে গত ৭ আগস্ট তাঁর বড় মেয়ে নাসিমা বেগম পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন। আয়ফুল বেগমের মেয়ে নাসিমা বেগম বলেন, ‘আমার মা গত ২৮ জুলাই দুলাভাই নুর উদ্দিনকে সঙ্গে নিয়ে ঘর নির্মাণের জন্য একটি এনজিও সংস্থা থেকে এক লাখ টাকা ঋণ তোলেন। এর পর থেকে এই টাকা আত্মসাৎ করতে সে আমার মাকে কৌশলে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়েছিল। গত ৩ আগস্ট রাতেও মাকে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে দেয় নুর উদ্দিন। ওই রাতেই মারা যান মা। টাকার বিষয়ে কিছু জানেন কি না—এমন প্রশ্ন করলে নুর উদ্দিন সন্দেহজনক কথাবার্তা বলে।’ বিশ্বনাথ থানার ওসি শামীম মুসা জানান, দাফনের চার দিন পর আয়ফুল বেগমকে হত্যার অভিযোগে নুর উদ্দিনকে আসামি করে বিশ্বনাথ থানায় হত্যা মামলা করেছেন নিহতের মেয়ে। মামলার তদন্তের স্বার্থে আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী গতকাল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে ওই নারীর লাশ কবর থেকে উত্তোলনের পর ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা