kalerkantho

সোমবার । ২১ অক্টোবর ২০১৯। ৫ কাতির্ক ১৪২৬। ২১ সফর ১৪৪১       

‘ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই রাব্বীকে হত্যা’

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই রাজশাহী সিটি কলেজের ছাত্র ফারদিন ইসনা আশারিয়া রাব্বীকে (১৯) হত্যা করা হয় বলে গ্রেপ্তারকৃত এক আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। গত শনিবার রাতে রাজশাহী মহানগর পুলিশের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে গত ৬ আগস্ট রাব্বীকে নগরীর হেতেম খাঁ ছোট মসজিদ এলাকায় চাপাতি দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়।

পুলিশ জানায়, ঘটনার পরদিন মাদকসেবী ওই এলাকার বাসিন্দা কুদরত আলীর ছেলে রনককে (২৩) হেরোইনসহ গ্রেপ্তার করা হয়। ওই মামলায় তাকে আদালতের নির্দেশে কারাগারেও পাঠানো হয়। পরে পুলিশের তদন্তে উঠে আসে মাদক ব্যবসায়ী ও সেবী রণকই হলো কলেজছাত্র রাব্বী হত্যা মামলার মূল আসামি। পরে ৮ আগস্ট রনককে হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ। গত ১৪ আগস্ট রিমান্ডে আনা হয় তাকে। রিমান্ডে এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি রনক হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে। পাশাপাশি তার দেওয়া তথ্য মতে বাড়ির শয়নকক্ষ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি ধারালো দা জব্দ করা হয়। এরপর গত শনিবার রাজশাহী মহানগর মুখ্য আদালত-৫-এর বিচারক সেলিম রেজার কাছে রনক দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়।

রনক আদালতকে জানায়, হেরোইনের টাকা সংগ্রহের জন্যই সে ধারালো দা দিয়ে রাব্বীকে হত্যা করে। রাজশাহী সিটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র রাব্বী ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফিরছিল। সে দিনাজপুরের পার্বতীপুরের মোমিনপুর গ্রামের বাসিন্দা মোজফফর আলী সরকারের ছেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা