kalerkantho

দুর্গাপুরে বিদ্যালয় মাঠে পশুর হাট

দুর্গাপুর (রাজশাহী) প্রতিনিধি   

৭ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্গাপুরে বিদ্যালয় মাঠে পশুর হাট

রাজশাহীর দূর্গাপুর উপজেলার বাজুখলসী সরকারি স্কুল মাঠ দখল করে পশুর হাট বসানো হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজশাহীর দুর্গাপুরে সরকারি প্রাথমিক স্কুল মাঠ দখল করে পশুর হাট বসানো হয়েছে। ঈদুল আজহা উপলক্ষে স্কুল বন্ধের কয়েক দিন আগে থেকেই উপজেলার কানপাড়া বাজার এলাকায় বাজুখলসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এই হাট বসানো হয়।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, বাজুখলসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা চলছিল। বিদ্যালয়ের মাঠে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে পশুরহাট বসানো হয়েছে। তবে জানা গেছে, শুধু ঈদকে কেন্দ্র করেই নয়, ওই স্কুল মাঠে সপ্তাহে দুই দিন হাট বসানো হয়।

পাঁচুবাড়ী এলাকার গরু বিক্রেতা আব্দুল হানিফ অভিযোগ করে বলেন, কোরবানির পশুর হাটের নামে গ্রামের সাধারণ মানুষের কাছ থেকে তারা চাঁদাবাজি করছে। চেয়ারম্যানের ক্ষমতা দেখিয়ে সরকারি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করে পশুর হাট বসানো হয়েছে।

বাজুখলসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিক মরিয়ম বেগম বলেন, ‘স্থানীয় চেয়ারম্যান ও হাট কমিটিকে নিষেধ করা হলেও তারা শোনেনি। এমনকি বিদ্যালয়ে পরীক্ষা চলছিল। কোনোভাবেই তাদের বোঝাতে পারিনি। তারা বারবার স্থানীয় এমপির দোহাই দিয়েছে।’

বিদ্যালয়ের সভাপতি মুনছের আলী বলেন, ‘স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সমসের আলীর চাপের মুখে আমি বিদ্যালয় মাঠে পশুর হাট বসাতে বাধ্য হয়েছি। এ জন্য আমাকে হুমকিও দেওয়া হয়েছে। তারা বিদ্যালয়কে হাট ইজারা বাবদ কোনো অর্থ দেননি।’ ইউপি চেয়ারম্যান সমসের আলী বলেন, ‘হাটের টাকা আমরা পকেটে নেব না। সব টাকা মসজিদের উন্নয়নের কাজে ব্যবহার করা হবে।’ তবে বিদ্যালয়ের পরিবেশ নিয়ে জানতে চাইলে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘স্কুল মাঠে হাট বসানোর বিষয়টি আমার জানা নেই। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিটন সরকার বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা ছিল না। তবে এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’

মন্তব্য