kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

স্কুলের দপ্তরির কানের পর্দা ফাটিয়ে টাকা নিল পুলিশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জামিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে খাকচাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নৈশপ্রহরী কাম দপ্তরি মো. উবায়দুল্লাহকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সজোরে থাপ্পড় দেওয়ায় উবায়দুল্লাহর বাঁ কানের পর্দা ফেটে গেছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। এ ঘটনায় গতকাল পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী।

অভিযোগে বলা হয়, গত শনিবার রাতে ইয়াবা কারবারি হিসেবে গ্রেপ্তার করার ভয় দেখিয়ে হাতকড়া লাগিয়ে উবায়দুল্লাহকে মারধর করেন এসআই জামিরুল। এ সময় তাঁর বাবা নুরুল ইসলামকে আটকিয়ে দুই হাজার ৫০০ টাকা নেন। এ সময় জামিরুলের সঙ্গে আরো পাঁচ পুলিশ সদস্য ছিলেন। মারধরে উবায়দুল্লাহর বাঁ কানের পর্দা ফেটে গেছে। এতে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করায় প্রথমে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতাল, পরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

তবে এসআই জামিরুল ইসলাম এ অভিযোগের কথা অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ মিথ্যা। আমি ওই স্কুলে যাইনি। অভিযোগ করা উবায়দুল্লাহকেও আমি চিনি না। কী কারণে অভিযোগ করা হয়েছে তাও জানি না।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) আলমগীর হোসেন, ‘প্রথমে আমাদের মৌখিকভাবে বিষয়টি জানানো হয়। আজ (গতকাল) লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ ব্যাপারে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা