kalerkantho

শনিবার । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৫ আগস্ট ২০২০ । ২৪ জিলহজ ১৪৪১

শিবালয়কে অবৈধ ড্রেজারমুক্ত ঘোষণা

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৬ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানিকগঞ্জের শিবালয়ে গতকাল শনিবার দিনভর ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে যমুনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে ১২টি ড্রেজার মেশিনসহ তিন হাজার পাইপ ধ্বংস করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসেন। এরপর তিনি অবৈধ ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন ব্যবসা থেকে শিবালয়কে মুক্ত ঘোষণা করেন।

মো. জাকির জানান, একটি সংঘবদ্ধ চক্র দীর্ঘদিন ধরে যমুনা নদীর পাটুরিয়া ঘাট থেকে জাফরগঞ্জের ঘোষবাড়ি খাল পর্যন্ত বিভিন্ন পয়েন্টে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছিল। মাঝে মাঝে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান চালিয়ে বালু উত্তোলনের ড্রেজার পাইপ ধ্বংস করা হলেও কয়েক দিন পর আগের মতোই চলতে থাকে এ অবৈধ বালু ব্যবসা। এবার স্থানীয় পর্যায়ে খোঁজখবর নিয়ে এ অবৈধ ব্যবসায় জড়িতদের নামের তালিকা তৈরি করা হয়। গতকাল সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার তেওতা, জাফরগঞ্জ, গাবতলীর খাল, ঘোষবাড়ির খাল ও দুবুলীয়া এলাকায় অন্তত ১২টি ড্রেজার মেশিন ও তিন হাজার পাইপ ধ্বংস করা হয়। অবৈধ বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতিও নেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে যাতে কেউ নদী থেকে বালু উত্তোলন না করতে পারে, সে জন্য স্থানীয়দের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে। আর ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম নিয়মিত চলবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা