kalerkantho

শনিবার । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৫ আগস্ট ২০২০ । ২৪ জিলহজ ১৪৪১

নদের বুকে অবৈধ বাজার

জামালপুরে উচ্ছেদে গড়িমসি

মোস্তফা মনজু, জামালপুর   

১৬ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নদের বুকে অবৈধ বাজার

জামালপুর শহরের দেওয়ানপাড়ায় ব্রহ্মপুত্র নদে জমি দখল ও স্থাপনা নির্মাণ করে বাজার বসানো হয়েছে। ছবি : কালের কণ্ঠ

জামালপুর শহরে পুরনো ব্রহ্মপুত্র নদের শহর রক্ষা বাঁধ ঘেঁষে অবৈধ বাজার গড়ে তোলা হয়েছে। স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্র ভাড়া তুলে প্রতি মাসে বিপুল অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এ নিয়ে জেলা প্রশাসনের মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় একাধিকবার আলোচনা হলেও তা উচ্ছেদ করা হয়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শহরের দেওয়ানপাড়ায় একটি প্রভাবশালী চক্রের ছত্রচ্ছায়ায় বাঁধ ঘেঁষে পরিত্যক্ত সেতুর নিচে জমি বেদখল করে একটি অবৈধ বাজার গড়ে তোলা হয়েছে। প্রভাবশালী চক্রটি সেখানে ছোট-বড় ৩০টির অধিক অস্থায়ী স্থাপনা নির্মাণ করে ব্যবসায়ীদের কাছে ভাড়া দিয়েছে। বাজারটি প্রতিদিন ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বেশ জমে ওঠে। শহরের ব্যস্ততম এলাকা হওয়ায় বেচাকেনা ভালো হয়। চক্রটি বাজারের ব্যসায়ীদের কাছ থেকে দোকান ভাড়া হিসেবে প্রতি মাসে প্রচুর টাকা আয় করার পাশাপাশি প্রতিদিন ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অবৈধভাবে টোল আদায় করে।

বাজারটিতে পণ্য বেচাকেনা বেশ জমজমাট থাকায় পৌর শহরের দৈনিক আনন্দগঞ্জ, স্টেশন, রানীগঞ্জসহ কয়েকটি বৈধ বাজারের ব্যবসা-বাণিজ্যে মন্দা অবস্থা বিরাজ করছে। ওই সব বাজারে প্রতিদিনের টোল আদায় কমে গেছে। জামালপুর পরিবেশ রক্ষা আন্দোলন ও সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনসহ বিভিন্ন সংগঠন অবৈধ বাজারটি উচ্ছেদের দাবি জানিয়েছে। কিন্তু প্রভাবশালী মহলের ছত্রচ্ছায়ায় নিয়ন্ত্রিত হওয়ার কারণে বাজারটি উচ্ছেদের উদ্যোগ কয়েক দফা ভেস্তে যায়। সর্বশেষ গত ১০ জুন জেলা প্রশাসনের মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভাতেও অবৈধ এই বাজার উচ্ছেদের ব্যাপারে আলোচনা হয়। এটি উচ্ছেদের জোরালো দাবি জানিয়েছেন কমিটির বেশ কয়েকজন সদস্য।

এদিকে ব্রহ্মপুত্র নদ দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণসহ একটি বাজার গড়ে তোলার কারণে শহর রক্ষা বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা দেখছে জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড। ১০-১২ দিন আগে কর্তৃপক্ষ বাজারের সব ব্যবসায়ীকে স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার জন্য নোটিশ দিয়েছে। কিন্তু প্রভাবশালী মহলের কারণে সেই নোটিশ কোনো কাজে আসছে না। ব্যবসায়ীরা বহাল তবিয়তে তাদের ব্যবসা চালিয়ে আসছে।

এ বিষয়ে জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী নবকুমার চৌধুরী বলেন, ‘উচ্ছেদ অভিযানের একটা আইনি প্রক্রিয়া থাকে। চাইলেই যখন-তখন কিছু করা যায় না। জেলা প্রশাসকের সহায়তায় দ্রুত সময়ের মধ্যে অবৈধ বাজারটি উচ্ছেদ করা হবে।’

জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রাজীব কুমার সরকার বলেন, ‘পানি উন্নয়ন বোর্ড এ বিষয়ে আমাদের একটি চিঠি দিয়ে অবহিত করলেই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে বাজারের সব স্থাপনা উচ্ছেদ এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা