kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

বিধি লঙ্ঘনের প্রতিযোগিতা

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

১২ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিধি লঙ্ঘনের প্রতিযোগিতা

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচারণায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের যেন প্রতিযোগিতা চলছে। এরই মধ্যে বিভিন্ন ভবনের দেয়াল, দোকানপাট, এমনকি বাসগৃহ ও যানবাহন পোস্টারে ছেয়ে গেছে। চলছে দফায় দফায় মিছিল। এ বিষয়ে প্রার্থীদের দাবি, অতি-উৎসাহী কর্মী-সমর্থকরা তাঁদের অজান্তেই এই কাজ করছে।

গতকাল মঙ্গলবার উপজেলার হরিদ্রাখালী, পুলঘাট বাজার, খালগোড়া বাজার, মোল্লার বাজার ও বাহেরচর বাজার এলাকা সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন দোকানপাট, বসতঘর ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের দেয়ালে প্রার্থীদের ছবি-প্রতীকসংবলিত পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। মোটরসাইকেলেও প্রার্থীদের ছবি ও প্রতীকসংবলিত পোস্টার (স্টিকার) সাঁটানো দেখা গেছে। তার ওপর গত সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলা সদরের বাহেরচর বাজারে কয়েক দফায় মিছিলও করেছে দলীয় ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকরা।

অথচ নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী, ‘কোনো প্রার্থী বা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বা তাঁর পক্ষে অন্য কোনো ব্যক্তি, সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান বা রাজনৈতিক দল নির্বাচনী এলাকায় অবস্থিত দেয়াল ও যানবাহনে পোস্টার, লিফলেট কিংবা হ্যান্ডবিল লাগাতে পারবে না। তবে ভোটকেন্দ্র ব্যতীত নির্বাচনী এলাকার যেকোনো স্থানে পোস্টার, লিফলেট ও হ্যান্ডবিল ঝুলাতে কিংবা টাঙ্গাতে পারবে।’

এসংক্রান্ত বিধিমালা উপেক্ষা করে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের বেশির ভাগ প্রার্থীকে প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে। তা ছাড়া অনেক প্রার্থীর শুভেচ্ছাসংবলিত রঙিন পোস্টার নির্বাচনী এলাকায় এখনো রয়ে গেছে। যা আচরণবিধি লঙ্ঘনের শামিল।

গত শনিবার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আচরণবিধি অবহিতকরণ সভায় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. জিয়াউর রহমান খলিফা বলেন, ‘আমি আসার পথে কিছু জায়গায় দোকানপাটের দেয়ালে পোস্টার দেখেছি। এসব পোস্টার প্রার্থীরা নিজ দায়িত্বে সরিয়ে ফেলবেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভিযান পরিচালনা করবেন। দোকানপাটে পোস্টার থাকলে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা) মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, আচরণবিধি লঙ্ঘন করে পোস্টার, লিফলেট ও হ্যান্ডবিল ব্যবহারের বিষয়টি প্রমাণিত হলে প্রার্থীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

মন্তব্য