kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়

সন্ধ্যার পর ক্যাম্পাসে উৎপাত

সজীব আহমেদ, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মশার উৎপাত দিন দিন বাড়ছে। বিশেষ করে সন্ধ্যার পর ক্যাম্পাসের পাশের ছাত্রাবাসগুলোতে বেড়েছে মশার মাত্রাতিরিক্ত উৎপাত। ফলে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা থেকে শুরু করে ছাত্রাবাসগুলোতে অবস্থান করাও কঠিন হয়ে পড়ছে। এতে একদিকে যেমন পড়াশোনার ব্যাঘাত ঘটছে, অন্যদিকে মশাবাহিত রোগ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় ভুগছে শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার অভাবসহ প্রশাসনের উদাসীনতার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ছাত্রাবাসগুলোতে অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা রাতের পাশাপাশি দিনের বেলাও কয়েল জ্বালিয়ে ও মশারি টানিয়ে থাকছে।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মশা নিধনের কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় মশার উৎপাত বেড়েই চলছে। অতিরিক্ত মশার কামড়ে চিকুনগুনিয়া, ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গুসহ মশাবাহিত নানা রোগব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার আতঙ্কে রয়েছে  শিক্ষার্থীরা। অগ্নিবীণা হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মারুফ আহমেদ বলেন, ‘তুলনামূলকভাবে এ বছর মশা বেশি। মশার উপদ্রবে ঠিকমতো পড়াশোনা করতে পারছি না। এভাবে চলতে থাকলে মশাবাহিত রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’

দোলনচাঁপা হলের আবাসিক শিক্ষার্থী নূরুন নাহার শিল্পী বলেন, ‘ক্যাম্পাসের সর্বত্র মশার উপদ্রব বেড়ে গেছে। দিনের বেলায়ও রুমে কয়েল জ্বালাতে হচ্ছে। কিন্তু তাতেও মশার অত্যাচার থেকে রেহাই পাওয়া যাচ্ছে না।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. উজ্জ্বল কুমার প্রধান জানান, ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় পানি জমে থাকার কারণে মশার উপদ্রব এত বেড়েছে। পৌরসভার সাহায্য নিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য